মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১

স্পেনে স্বাস্থ্যসেবা উন্মুক্তের দাবিতে অভিবাসীদের মানববন্ধন

প্রকাশ: ১০ এপ্রিল ২০২২ | ২:০২ অপরাহ্ণ আপডেট: ১০ এপ্রিল ২০২২ | ২:০২ অপরাহ্ণ
স্পেনে স্বাস্থ্যসেবা উন্মুক্তের দাবিতে অভিবাসীদের মানববন্ধন

স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদে স্বাস্থ্য সেবা সবার জন্য উন্মুক্ত করার দাবিতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সামনে মানববন্ধন-সমাবেশ করা হয়েছে। মানববন্ধ শেষে স্মারকলিপি দিয়েছে সামাজিক-মানবাধিকার সংগঠন ও অভিবাসীরা।

স্প্যানিশ মানবাধিকার সংগঠন ‘লা সোসিদাদ এস্পানিওলা দে সালুদ পূবালিকা ই এডমিনিস্ট্রেশন স্যানিটারিয়া’ (SESPAS), সানিদাদ ইউনিভার্সাল (Sanidad Universal) রেড ইন্টার লাভাপিয়েস ও রেড সলিদারিদাদসহ ৩ শতাধিক সংগঠনের নেতারা আমন্ত্রণে বাংলাদেশি মানবাধিকার সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন দে ভালিয়েন্তে বাংলার তত্ত্বাবধানে স্বাস্থ্য সেবা সবার জন্য উন্মুক্ত চাই ব্যানার নিয়ে প্রবাসী বাংলাদেশিরা অংশ নেন।

বৃহস্পতিবার (৭ এপ্রিল) প্রায় শতাধিক স্থানীয় অভিবাসীদের সঙ্গে উল্লেখযোগ্য প্রবাসী বাংলাদেশিরাও মানববন্ধন ও সমাবেশে অংশ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন।

স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদের স্বাস্থ্য, খাদ্য ও সেবা মন্ত্রণালয়ের সামনে এই মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় বৈধ কাগজপত্র ছাড়া বসবাসকারী বাংলাদেশিসহ বিভিন্ন দেশের অবৈধদের স্বাস্থ্য সেবা দেওয়ার দাবি করা হয়।

সানিদাদ উনিভার্সাল-(Sanidad Universal) এর মুখপাত্র রাকেল গঞ্জালেজের উপস্থাপনায় আয়োজিত সমাবেশে বক্তব্য দেন রেড ইন্টার লাভাপিয়েসের সভাপতি মারিয়া খসে পেপা তররেস, রেড ইন্টার লাভাপিয়েসের মাইতি, বাংলাদেশি মানবাধিকার সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন দে ভালিয়েন্তে বাংলার সভাপতি মোহাম্মদ ফজলে এলাহী, রেড সলিরিদাদের আকখিদা নিনেস, বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ইন স্পেনের সভাপতি আল মামুনসহ বিভিন্ন সংগঠনের স্থানীয় নেতারা।

মানববন্ধন ও সমাবেশে স্প্যানিশ, বাংলাদেশি, মরক্কো, আফ্রিকান, সেনেগালসহ বিভিন্ন দেশের প্রবাসী অভিবাসীরা অংশ নেন।

সভায় বক্তারা বলেন, স্পেনে অবৈধ অভিবাসীরা যাদের বৈধ কাগজ নেই, তারা প্রতিনিয়ত ভালো কাজ ও স্বাস্থ্য সেবা থেকে বঞ্চিত হন। স্পেনে অবৈধ অভিবাসীদের এসব ন্যায্য দাবিগুলো এখনও পূরণ হয়নি।

নতুন এই স্বাস্থ্য আইনে বৈধ ও অবৈধ অভিবাসীরা ভিবিন্নভাবে শোষিত হচ্ছে। তারা নতুন এই স্বাস্থ্য আইন বাতিল করে সবার উন্মুক্ত জনস্বাস্থ্য ব্যবস্থা পুনরায় চালুর দাবি জানান। পরে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে স্মারকলিপি পেশ করার মাধ্যমে সভার সমাপ্তি হয়।

সম্পর্কিত পোস্ট