বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১

‘স্পেনের সঙ্গে বাংলাদেশের সুসম্পর্ক আরও সুদৃঢ় হচ্ছে’

প্রকাশ: ৩০ মার্চ ২০২২ | ৮:৩০ অপরাহ্ণ আপডেট: ৩০ মার্চ ২০২২ | ৮:৩০ অপরাহ্ণ
‘স্পেনের সঙ্গে বাংলাদেশের সুসম্পর্ক আরও সুদৃঢ় হচ্ছে’

বাংলাদেশের সঙ্গে স্পেনের সুসম্পর্ক দীর্ঘদিনের, বর্তমানে সেই সুসম্পর্ক আরও সুদৃঢ় হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন স্পেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক খাবিয়ের সালিদো ওরটিজ।

সোমবার (২৮ মার্চ) সন্ধ্যায় স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে স্প্যানিশ সরকারের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা ও বিদেশি কূটনীতিকদের সম্মানে দূতাবাস আয়োজিত সংবর্ধনা ও নৈশভোজের অনুষ্ঠানে এইসব কথা বলেন তিনি।

এসময় স্পেনে বাস করা বাংলাদেশিদের স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা জানিয়ে খাবিয়ের সালিদো ওরটিজ বাংলাদেশের উন্নয়নের প্রশংসা করেন।

বৈদেশিক বাজারে পোশাক রপ্তানিতে বাংলাদেশের অনেক অবদান উল্লেখ করে তিনি বলেন, ভবিষ্যৎ প্রবৃদ্ধির ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অপার সম্ভাবনা রয়েছে।

অনুষ্ঠানে স্প্যানিশ সরকারের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা, বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত ও কূটনীতিক, গণমাধ্যমের প্রতিনিধি, বাংলাদেশি সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের নেতারা অংশ নেন। অনুষ্ঠানে আগত অতিথিদের অভ্যর্থনা জানান স্পেনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ সারওয়ার মাহমুদ ও তার সহধর্মিণী ফরিদা আক্তার।

দূতাবাসের কাউন্সেলর (লেবার উইং) মো. মোতাসিমুল ইসলামের পরিচালনায় মাদ্রিদের হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালের হলরুমে অনুষ্ঠিত এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের শুরুতেই বাংলাদেশ ও স্পেনের জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন করা হয়।

অনুষ্ঠানে স্পেনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ সারওয়ার মাহমুদ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্মরণ করে বলেন, এ বছর একসঙ্গে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন করা হচ্ছে। যা আমাদের জাতীয় জীবনের একটি ঐতিহাসিক দুর্লভ মুহূর্ত।

তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অনির্বাণ স্মৃতির উদ্দেশে গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন ও বিনম্র শ্রদ্ধা জানান জাতীয় চার নেতা, মুক্তিযুদ্ধের ৩০ লাখ শহীদ ও ২ লাখ মা-বোনসহ বীর মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযুদ্ধের সংগঠকদের। কৃতজ্ঞতা জানান সব বন্ধুরাষ্ট্র, সংগঠন ও ব্যক্তির প্রতি যারা মুক্তিযুদ্ধে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন।

রাষ্ট্রদূত আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়ন অর্থনীতিতে বাংলাদেশ এখন বিশ্বের রোল মডেল। রাষ্ট্রদূত মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করে বাংলাদেশকে একটি প্রগতিশীল, প্রযুক্তিভিত্তিক, উন্নত ও মর্যাদাশীল দেশ হিসেবে গড়ে তোলার কাজে সবাইকে আত্মনিয়োগ করার আহবান জানান।

পরে স্পেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক খাবিয়ের সালিদো ওরটিজকে সঙ্গে নিয়ে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ সারওয়ার মাহমুদ ও তার সহধর্মিণী ফরিদা আক্তার স্বাধীনতা দিবসের কেক কাটেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ দূতাবাসের দূতালয় প্রধান এটিএম আব্দুর রউফ মণ্ডল, কমার্শিয়াল কাউন্সেলর রেদোয়ান আহমেদ, কাউন্সিলর দ্বীন মোহাম্মদ ইমাদুল হক (ডিপ্লোমেটিক উইং), কাউন্সেলর মো. মোতাসিমুল ইসলাম (লেবার উইং), বার্সেলোনায় বাংলাদেশের অনারারি কন্সুল রামন পেদ্র বেরনাউস, আওয়ামী লীগ স্পেন শাখার সভাপতি এসআরআইএস রবিন, সহ-সভাপতি একরামুজ্জামান কীরন, কবির হোসেন, মো. তোতা কাজী, সাধারণ সম্পাদক রিজভী আলম, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক তামিন চৌধুরী, যুগ্ম সম্পাদক এফএম ফারুক পাভেল, হারুন অর রশিদ আকাশ, বেলাল আহমদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আলমগীর হোসেন, তাপস দেবনাথ, আনিসুর রহমান বিজয়, আইন সম্পাদক এডভোকেট তারিক হোসেন, কাতালোনিয়া আওয়ামী লীগের আহবায়ক নূরে জামাল খোকন, যুগ্ম আহবায়ক মিজান রহমান, কাজী আমির হোসেন আমু প্রমুখ।

বাংলাদেশি কমিউনিটি নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ইন স্পেনের সভাপতি আল মামুন, সাধারণ সম্পাদক মুরাদ মজুমদার, স্পেন বাংলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি সাহাদুল সুহেদ, সদস্য মো. সিদ্দিকুর রহমান, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান মো. সাজিদ মওলা, নোয়াখালী জেলা সমিতির সহ-সভাপতি আবুল কাসেম মুকুল প্রমুখ।

সংলাপ-৩০/০৩/০০৮/আ/আ

সম্পর্কিত পোস্ট