শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১

সাংবাদিক দিলারা হাশেমকে রাষ্ট্রীয় পদকে ভূষিত করার দাবি

প্রকাশ: ২৬ মার্চ ২০২২ | ৭:৪৯ অপরাহ্ণ আপডেট: ২৬ মার্চ ২০২২ | ৭:৪৯ অপরাহ্ণ
সাংবাদিক দিলারা হাশেমকে রাষ্ট্রীয় পদকে ভূষিত করার দাবি

কথাসাহিত্যিক ও সাংবাদিক দিলারা হাশেমকে রাষ্ট্রীয় পদকে ভূষিত করার দাবি জানানো হয়েছে। শুক্রবার (২৫ মার্চ) সাউথ এশিয়ান রাইটার্স অ্যান্ড জার্নালিস্টস ফোরামের উদ্যোগে সন্ধ্যায় নিউইয়র্ক শহরের জ্যাকসন হাইটসে অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সরকারের প্রতি এ দাবি জানান বক্তারা।

প্রবীণ সাংবাদিক সৈয়দ মোহাম্মদ উল্লাহর সভাপতিত্বে ‘স্মৃতিতে অমর দিলারা হাশেম’ শীর্ষক এই অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন সাংবাদিক-লেখক আকবর হায়দার কিরন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা দিলারা হাশেমের ষাট দশকের শুরু থেকে তার কথাসাহিত্য, সাংবাদিকতা, সংগীত ও চিত্র শিল্প নিয়ে আলোচনা করেন। সত্যজিৎ রায়ের মতো কিংবদন্তি তার সিনেমায় দিলারা হাশেমকে অভিনয় করার অনুরোধ করেছিলেন। কিন্তু তিনি অত্যন্ত বিনয়ের সঙ্গে অপারগতা জানিয়েছিলেন বলে বক্তারা জানান।

দিলারা হাশেম ১৯৭৬ সালে বাংলা একাডেমি পুরস্কার পেলেও এ পর্যন্ত একুশে ও স্বাধীনতা পদক লাভ করেননি বলে বক্তারা দুঃখ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তার মৃত্যুতে ওয়াশিংটনের বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে কেউ শোক জানাতে না যাওয়ায় অনেকে দুঃখ প্রকাশ করেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে ভার্চুয়ালি বক্তব্য দেন- বেতার ও টিভি ব্যক্তিত্ব ইকবাল বাহার চৌধুরী ও রোকেয়া হায়দার। কণ্ঠশিল্পী রুপা চৌধুরী ‘আগুনের পরশমনি ছোঁয়াও প্রাণে’ গানটি গেয়ে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করেন।

এ সময় আরও বক্তব্য দেন ডেমোক্রেট নেতা মোর্শেদ আলম, লেখক সাইদ তারেক, সিনিয়র সাংবাদিক মাইন উদ্দিন আহমেদ, দেশ পত্রিকার সম্পাদক মিজানুর রহমান, উদীচীর সংগঠক চৌধুরী শামীম, সাংবাদিক হাসানুজ্জামান সাকি, রিমন ইসলাম ও মিনহাজ আহমেদ।

প্রসঙ্গতঃ গত ১৯ মার্চ যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ডে তিনি শেষ:নিশ্বাস ত্যাগ করেন। তার বয়স হয়েছিল ৮৬ বছর।

সংলাপ-২৬/০৩/০১৪/আ/আ

সম্পর্কিত পোস্ট