বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

সরগরম অমর একুশে বইমেলা ২০২২

প্রকাশ: ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২ | ৯:২৪ অপরাহ্ণ আপডেট: ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২ | ৯:২৪ অপরাহ্ণ
সরগরম অমর একুশে বইমেলা ২০২২

গত বছরগুলোর তিক্ত অভিজ্ঞতায় লেখক-পাঠক-প্রকাশনীসহ জনতার উৎকন্ঠা ছিলো অমর একুশে বইমেলা ২০২২ ঘিরে। জনমনে শংকা ছিলো কেমন হতে যাচ্ছে এ বছরের বইমেলা। বইমেলার শুরুতে ছিলো কোভিডের বিধিনিষেধও। অবশেষে ২১শে ফেব্রুয়ারী শেষ হয় চলমান বিধিনিষেধ। বিধিনিষেধ শেষ হতেই বদলে যায় বইমেলার চিত্র। দিন যত যাচ্ছে মেলায় ততই ভিড় বাড়ছে বইপ্রেমী, পাঠক, লেখক ও দর্শনার্থীর। কেউ আসছেন বই কিনতে আবার কেউ আসছেন ঘুরে ঘুরে বইমেলা দেখতে। বই কিনতে আসা মানুষের চাইতে বইমেলায় ঘুরতে আসা মানুষের সংখ্যাটা চোখে পড়ার মতো।


করোনার বিধিনিষেধ শেষ হয়ে যাওয়ায় উৎসবমূখর পরিবেশে চলছে বইমেলা। বই বেচাবিক্রি পুরোদমে শুরু না হলেও লক্ষ্য করা যায় উপচে পড়া ভিড়। অনেকেই এসেছেন দল বেঁধে, কেউ কেউ বন্ধু-বান্ধবদের নিয়ে, কেউবা পরিবার পরিজন কিংবা প্রিয় মানুষকে সঙ্গে নিয়ে এসেছেন মেলায় । অন্যান্য বছরগুলোর তুলনায় বেশি ছিল শিশু, কিশোর-কিশোরীর উপস্থিতিও। মেলায় আগতরা ঘুরে ঘুরে দেখছেন নিজের প্রিয় লেখকসহ অন্য লেখকদের নতুন বইগুলো। এক স্টল থেকে অন্য স্টলে ঘোরাঘুরিতে কাটিয়ে দিচ্ছেন সময়। মাঝেমধ্যে কিনছেন বইও। আবার কেউ পছন্দের লেখকের সাথে তুলছেন সেলফি। কেউবা প্রিয় লেখক থেকে কেনা বইয়ে নিচ্ছেন লেখকের অটোগ্রাফ।

মেলায় দিনদিন বাড়ছে জনসমাগম। বইপ্রেমীদের এমন উৎসাহে আশা ফিরে পাচ্ছেন প্রকাশনীগুলো। তাদের আশা এবার গত বছরগুলোর তুলনায় অধিকতর কাটতি থাকবে বইয়ের।

মেলায় শিশু কর্ণারে চোখে পড়ার মতো ভিড়। শিশুরা আগ্রহ নিয়ে শিশুতোষ মজার মজার ছড়া ও কার্টুনবই কিনছে। সবচেয়ে বেশি ভিড় সিসিমপুরের স্টলে। এছাড়াও সায়েন্স ফিকশন, গল্প ও উপন্যাসজাতীয় বইগুলো বেশি কিনছে তরুন প্রজন্ম।

সম্পর্কিত পোস্ট