মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

শিক্ষকদের অবমাননা করায় শিক্ষক সমিতির উদ্বেগ প্রকাশ

প্রকাশ: ৫ অক্টোবর ২০২১ | ৪:৩৪ অপরাহ্ণ আপডেট: ৫ অক্টোবর ২০২১ | ৪:৩৪ অপরাহ্ণ
শিক্ষকদের অবমাননা করায় শিক্ষক সমিতির উদ্বেগ প্রকাশ

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) দুই জন শিক্ষকের বিরুদ্ধে অশ্লীল শ্লোগান ও শারীরিক নির্যাতনের হুমকি দিয়ে মানববন্ধন ও মিছিল করায় ছাত্র-নামধারীদের এমন ঔদ্ধত্য আচরণের জন্য উদ্বেগ প্রকাশ করেছে চবি শিক্ষক সমিতি।

সোমবার দুপুরে গণমাধ্যমের কাছে পাঠানো এক বিবৃতিতে এই উদ্বেগ প্রকাশ করেন শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক মোঃ এমদাদুল হক ও সাধারণ সম্পাদক মনজুরুল আলম।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি অত্যন্ত উদ্বেগের সাথে লক্ষ্য করছে যে, কতিপয় বিপথগামী ছাত্র নামধারীরা চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চ.বি.) ক্যাম্পাসে প্রকাশ্যে এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সম্মানিত শিক্ষকদের বিরুদ্ধে মিথ্যাচারণপূর্ণ শ্লোগান, আপত্তিকর শব্দপ্রয়োগে গালাগাল ও হুমকি দিয়ে অসম্মান, অবমাননা করে ঔদ্ধত্য দেখিয়ে যাচ্ছে।

কয়েক সপ্তাহের ব্যবধানে চ.বি. ক্যাম্পাসে দু’জন সর্বজন শ্রদ্ধেয় শিক্ষকের বিরুদ্ধে অশ্লীল শ্লোগান ও শারীরিক নির্যাতনের হুমকি দিয়ে মিছিল ও মানববন্ধন করা হয়েছে। শিক্ষকদের একজন চ.বি. ব্যবস্থাপনা বিভাগের বরিষ্ঠ অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আবু তাহের, যিনি বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সম্মানিত সদস্য এবং দ্বিতীয়জন চ.বি. আইন বিভাগের জ্যেষ্ঠ অধ্যাপক মুহাম্মদ জাকির হোসেন, যিনি ২০১৯ সালে বাঙালি জাতীয়তাবাদ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের প্রতিনিধিত্বকারী হলুদ দল মনোনীত শিক্ষক সমিতির নির্বাচিত সভাপতি ছিলেন। জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত তাঁদের দু’জনের মতামত ও
তাত্ত্বিক বিশ্লেষণের সূত্র ধরে তাঁদের বিরুদ্ধে ছাত্র-নামধারীদের এমন বিষোদগারে চ.বি.’র সকল শিক্ষক বিব্রত, মর্মাহত ও অপমানিত।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কর্তৃক ৭৩’র বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাদেশের মাধ্যমে প্রদানকৃত বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মত প্রকাশের স্বাধীনতা’র অধিকারকে হেয় প্রতিপন্নকারী এমন কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি নিন্দা জ্ঞাপন করছে। শিক্ষক অবমাননাকারীদের এমন আচরণ মুক্তচিন্তা ও গণতন্ত্র চর্চার অন্তরায় এবং এ বিষয়ে দায়িত্বশীলদের নির্লিপ্ততা ও শৈথিল্য প্রদর্শন কখনো কাম্য নয়। কারণ এর পরিণতি ভয়ঙ্কর হতে পারে বলে চ.বি. শিক্ষক সমিতি মনে করে।

অতএব, শিক্ষকদের অবমাননাকারী ও হুমকিদাতাদের চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনি পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ও রাষ্ট্রীয় প্রশাসনের প্রতি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি জোর দাবি জানাচ্ছে।

উল্লেখ্য, সংবাদ মাধ্যমে ‘ছাত্রী হেনস্তা থেকে চাঁদাবাজি সবকিছুতে ছাত্রলীগ’ শিরোনামে প্রকাশিত একটি সংবাদের মতামত দেন শিক্ষক সমিতির সাবেক সভাপতি ও আইন বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক জাকির হোসেন। এই সংবাদ প্রকাশের পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এই শিক্ষকের ছবিসহ অরুচিকর মন্তব্য ও হুমকি প্রদান করতে দেখা যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের একাধিক শিক্ষার্থী।

সম্পর্কিত পোস্ট