শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০

শারজাহতে বিনামূল্যে পড়ার সুযোগ, দেওয়া হবে খাবার-বাড়ি ভাড়ার খরচও

প্রকাশ: ৪ আগস্ট ২০২৩ | ৫:৩২ অপরাহ্ণ আপডেট: ৪ আগস্ট ২০২৩ | ৫:৩২ অপরাহ্ণ
শারজাহতে বিনামূল্যে পড়ার সুযোগ, দেওয়া হবে খাবার-বাড়ি ভাড়ার খরচও

বিদেশি শিক্ষার্থী হিসেবে আরব আমিরাতে উচ্চশিক্ষা নেওয়ার চিন্তা-ভাবনা করছেন? তাহলে আপনার জন্য আছে ভালো খবর। আমিরাতের গুরুত্বপূর্ণ প্রদেশ শারাজাহর আল কাশেমিয়া বিশ্ববিদ্যালয় আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের স্কলারশিপের মাধ্যমে বিনামূল্যে পড়ার সুযোগ দিচ্ছে। শুধু তাই নয় সঙ্গে বাড়ি ভাড়া, খাবার এবং ভিসার খরচও বিশ্ববিদ্যালয়ই দেবে।

তবে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কলারশিপ পেতে হলে আরবি ভাষার ওপর দক্ষতা থাকতে হবে। কারণ সেখানে যেসব বিষয়ে পড়ানো হবে, সেগুলোর কিছু আরবি ভাষায় থাকবে।

আরবি না জানা থাকলেও অবশ্য সমস্যা হবে না। কারণ আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীরা প্রথমে বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবি ভাষা শিক্ষা কেন্দ্রে ভর্তি হতে পারবেন। সেখানে এক বছর মেয়াদী কোর্স করানো হবে। এর মাধ্যমে আরবির ওপর দক্ষ করে তোলা হবে।

ওয়াইস আহমেদ নামের ১৯ বছর বয়সী এক শিক্ষার্থী এই স্কলারশিপ নিয়ে কথা বলেছেন সংবাদমাধ্যম গালফ নিউজের সঙ্গে। বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়টিতে আরবি ভাষার ওপর কোর্স করছেন তিনি। ওয়াইস জানিয়েছে, ভাষা শিক্ষার কোর্স শেষে ব্যাচেলর অব আর্টসের ওপর উচ্চশিক্ষা নেবেন।

তিনি বলেছেন, ‘আমি আমার হাইস্কুলের পড়াশুনা শেষ করি নিজ শহরে। এরপর অনলাইনে স্কলারশিপ নিয়ে ঘাটাঘাটি করছিলাম। তখন দেখতে পাই আল কাশেমিয়া বিশ্ববিদ্যালয় স্কলারশিপ দিচ্ছে। আমি অনলাইনে আবেদন করি। আবেদনের জন্য আপনার দরকার হবে পাসপোর্ট, জাতীয় পরিচয়পত্র, চারিত্রিক সনদপত্র এবং শারীরিক সুস্থতার সনদ।’

তিনি আরও বলেছেন, ‘যখন গত বছর আমি আসি তখন শিক্ষার্থীদের করোনার সনদও দেখাতে হয়েছিল। এছাড়া আপনার হাইস্কুলের স্কোর ৭০ থেকে ৭৫ শতাংশ হতে হবে। এছাড়া আপনাকে আইইএলটিসের (IELTS) স্কোরও দেখাতে হতে পারে। আমার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে বলব যারা স্কলারশিপ পেতে আগ্রহী তারা যেন বিশেষ দক্ষতা ও পুরস্কারের বিষয়টিও উপস্থাপন করে। আমি মনে করি এটি আবেদনে সহায়ক হতে পারে।’

তিনি আরও বলেছেন, ‘এই স্কলারশিপে আপনার সব খরচ বহন করা হবে— টিউশন ফি, বই কেনার খরচ, খাবার, বাসস্থান, হোস্টেলের খরচ এবং ভাতা। যখন আপনি শুধুমাত্র আরবি ভাষার কোর্স করবেন তখন আপনাকে ১ হাজার দিরহাম ভাতা দেওয়া হবে। যখন মূল কোর্স শুরু হবে তখন দেড় হাজার দিরহাম ভাতা দেওয়া হবে। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয় অসংখ্য কোর্স এবং বিভিন্ন পোগ্রামেও অংশ নিতে সুযোগ দেবে আপনাকে। কোর্সের মেয়াদ ৫০ শতাংশ শেষ হওয়ার পর আপনাকে নিজ বাড়িতে যাওয়ার জন্য বিমানের টিকিট দেওয়া হবে। এরপর কোর্স পুরোপুরি শেষ হওয়ার পর বাড়িতে ফিরে যেতে আবারও বিমানের টিকিট দেওয়া হবে।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের এই স্কলারশিপটি শুধুমাত্র আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য। আর বয়স হতে হবে ১৬ থেকে ২০ বছরের মধ্যে।

কখন আবেদন করা যাবে?

এ বিশ্ববিদ্যালয়ে এপ্রিল, মে, জুন এবং জুলাই মাসে আবেদন করা যায়। বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব ওয়েবসাইটে গিয়ে আবেদন করতে হবে। এছাড়া আবেদন করতে কী কী কাগজ প্রয়োজন তার সব তথ্য ওয়েবসাইটেই পাওয়া যাবে।

ওয়াইস আহমেদ বলেছেন, ‘এ বছর আবেদনের সময়সীমা শেষ হয়ে গেছে। তবে আগামী বছর আবার আগ্রহী শিক্ষার্থীরা এ সুযোগ পাবেন। খুব সহজেই এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করা যাবে। আবেদন শেষে যাচাই-বাছাই শেষে জানানো হবে, আপনাকে প্রাথমিক সাক্ষাৎকারের জন্য বাঁছাই করা হয়েছে কিনা।’

সম্পর্কিত পোস্ট