শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১

লংমার্চে যাচ্ছে না বিবেকবান নাগরিক সমাজ

প্রকাশ: ২৬ জানুয়ারি ২০২২ | ১২:২৪ অপরাহ্ণ আপডেট: ২৬ জানুয়ারি ২০২২ | ১২:২৪ অপরাহ্ণ
লংমার্চে যাচ্ছে না বিবেকবান নাগরিক সমাজ

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) উপাচার্য ফরিদ উদ্দিন আহমেদের পদত্যাগ ও শিক্ষার্থীদের ন্যায্য দাবির সমর্থনে ঢাকা থেকে সিলেট অভিমুখে যে লংমার্চের ডাক দিয়েছিল ‘বিবেকবান নাগরিক সমাজ’, সেটি আর হচ্ছে না। বুধবার (২৬ জানুয়ারি) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশ থেকে এ কথা জানান বিবেকবান নাগরিক সমাজের পক্ষে কবি ও লেখক রাখাল রাহা।

সমাবেশে তিনি বলেন, দীর্ঘদিন ধরে আপনারা জানেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্যের বাহিনীরা শিক্ষার্থীদের উপর হামলা করে আসছে। রাষ্ট্রের টাকায় এই বিশ্ববিদ্যালয়গুলো চলে। আমাদের টাকায় জনগণের টাকায় ভিসি বেতন পায়। আমাদের সন্তানদের সেখানে পাঠানো হয়, আপনি তাদের নিরাপত্তা দেবেন, তাদের শিক্ষা দেবেন। আপনি প্রশাসনের লোক এনে তাদের উপর নির্বিচারে গুলিবর্ষণ করবেন পেটোয়া বাহিনী দিয়ে, ছাত্রলীগ লেলিয়ে দিয়ে আপনি আপনার গদি রক্ষা করেন। এই যে পরিস্থিতি এই বিষয়ে আমাদের কাছে জবাব দিতে হবে। আমরা ছেড়ে দেবো না সামনের দিনগুলোতে। আমরা এই দেশের মানুষ, আমাদের সন্তানরা এই দেশেই পড়বে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনি কেন আমাদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো এভাবে ধ্বংস করছেন? কেন আজকে আমাদের সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে এমন পরিস্থিতি? কেন বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অপদার্থদের ভিসি হিসেবে নিয়োগ দিচ্ছেন?
রাখাল রাহা বলেন, শিক্ষার্থীদের অনশন ভাঙানোর জন্য লংমার্চ ও যাত্রাপথে পাঁচ জায়গায় সমাবেশ করার কথা ছিল। ইতোমধ্যে শিক্ষার্থীরা অনশন ভাঙায় কর্মসূচি স্থগিত করা হয়েছে।
রাষ্ট্রচিন্তার সমন্বয়ক দিদারুল আলম ভূঁইয়া বলেন, আমাদের সর্বজন শ্রদ্ধেয় ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের কমিটমেন্টে শিক্ষার্থীরা অনশন ভাঙতে সম্মত হওয়ায় আমাদের কর্মসূচি স্থগিত করা হয়েছে।

যদি শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রতারণা করা হয় তাহলে আমরা অভিভাবকরা আবার মাঠে নামব।

সম্পর্কিত পোস্ট