শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধের আহবান কানাডা প্রবাসী বাংলাদেশিদের

প্রকাশ: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২ | ১:০২ অপরাহ্ণ আপডেট: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২ | ১:০২ অপরাহ্ণ
রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধের আহবান কানাডা প্রবাসী বাংলাদেশিদের

রাশিয়া-ইউক্রেন চলমন যুদ্ধ বন্ধের আহবান জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন কানাডা প্রবাসী বাংলাদেশিরা। রোববার (২৭ ফেব্রুয়ারি) দেওয়া ওই বিবৃতিতে যুদ্ধের কারণে কানাডার অর্থনীতির প্রভাবের কথাও তুলে ধরেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

প্রবাসী বাংলাদেশিরা বলেন, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধে কানাডার অর্থনীতিতে প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। যুদ্ধের কারণে খাদ্য ও পেট্রলিয়াম পণ্যের বাজার অস্থিতিশীল হয়ে উঠছে। জ্বালানি তেলের ব্যারেল বৃহস্পতিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) বেড়ে গেছে। ঊর্ধ্বমুখী খাদ্যপণ্যের দাম, বিভিন্ন দেশের সঙ্গে কানাডার শেয়ারবাজারেও দরপতন হয়েছে। এরই মধ্যে কানাডার পুঁজিবাজারেও ব্যাপক পরিবর্তন হয়েছে। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে কানাডা প্রবাসী বাংলাদেশিদের মধ্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।

কানাডার বাংলা পত্রিকা ‘নতুন দেশ’ এর প্রধান সম্পাদক শওগাত আলী সাগর এক বিবৃতিতে বলেন, এ মুহূর্তে ইউক্রেনের মানুষ তাদের মাতৃভূমি ও পরিবারের সদস্যদের জীবন রক্ষায় লড়াই করছেন। লড়াইটা বন্ধ হওয়া জরুরি।

বিশিষ্ট কলামিস্ট উন্নয়ন গবেষক ও সমাজতাত্ত্বিক বিশ্লেষক মো. মাহমুদ হাসান বলেন, আগ্রাসন শান্তি, স্থিতিশীলতা ও উন্নয়নের পরিপন্থি। যুদ্ধ কখনো শান্তির পক্ষে টেকসই সমাধান নয়। মানবতাকে বিপর্যস্ত করার যে ঘৃণ্য ও বর্বরোচিত প্রচেষ্টা ইউক্রেনে চলছে, বিশ্বশান্তির স্বার্থে অনতিবিলম্বে তা বন্ধ করতে হবে। বিশ্ব নেতৃত্বকে পারস্পারিক লাভ-লোকসানকে পেছনে ফেলে শান্তি ও মানবতাকে অগ্রাধিকার দিয়ে এগিয়ে আসতে হবে।

কানাডার এবিএম কলেজের প্রতিষ্ঠাতা প্রেসিডেন্ট শিক্ষাবিদ ড. বাতেন বলেন, কোনো দেশের জন্যই যুদ্ধ কাম্য নয়। এমনকি রাশিয়ার মস্কোসহ ৫৪টি শহরে নাগরিকরা বিক্ষোভ করেছে, পুতিনের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়েছে। রাশিয়ার সাংবাদিক, লেখক বুদ্ধিজীবীদের উল্লেখযোগ্য একটা অংশ যোগ দিয়েছে সেই প্রতিবাদে। মানবিকতা সবার ওপরে রেখে যুদ্ধ বন্ধের তীব্র আহ্বান জানাই।

কানাডা প্রবাসী রম্য লেখক বায়াজিদ গালিব বলেন, আগ্রাসন কখনই সুফল বয়ে আনতে পারে না। ইউক্রেনকে আক্রমণ না করে আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করতে পারতো রাশিয়া। এ যুদ্ধের তীব্র সমালোচনা করছি ও যুদ্ধ বন্ধের আহবান জানাচ্ছি।

সিলেট অ্যাসোসিয়েশন অব ক্যালগেরির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি রূপক দত্ত বলেন, ‘যুদ্ধ নয় শান্তি চাই’ এ স্লোগান হোক সারাবিশ্বের। এখনো করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে ওঠেনি। এরই মধ্যে যুদ্ধ সত্যিই অপ্রত্যাশিত। ইউক্রেনের ব্যাপারে রাশিয়াকে আরও সহনশীল হওয়ার আহ্বান জানিয়ে যুদ্ধ বন্ধের আহবান জানাচ্ছি।

বিশিষ্ট কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব ও সাবেক ছাত্রনেতা কিরণ বণিক শংকর বলেন, ইউক্রেনে রুশ আক্রমণ মানবতাবিরোধী। এর প্রভাব পড়ছে সারাবিশ্বে। শিগগির এ সিদ্ধান্ত থেকে রাশিয়াকে বেরিয়ে আসতে হবে। তাই যুদ্ধ বন্ধের জোর দাবি জানাচ্ছি।

প্রবাস বাংলা ভয়েসের প্রধান সম্পাদক আহসান রাজীব বুলবুল বলেন, সভ্য সমাজে কখনই যুদ্ধ কাম্য নয়। শিগগির এ সমস্যার সমাধান হবে, যুদ্ধ বন্ধ হবে, মানবিকতা ফিরে আসবে, সারাবিশ্বে অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতা বজায় থাকবে এমনটাই আমাদের প্রত্যাশা।

এছাড়া ইউক্রেনের মানুষদের জন্য তহবিল সংগ্রহ করছেন কানাডিয়ান চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন অভিনেতা রায়ান রোডনি রেনল্ডস। জাতিসংঘের উদ্বাস্তু বিষয়ক হাইকমিশনের হয়ে তিনি কানাডিয়ানদের আহবান জানান আর্থিক সহায়তার। তিনি ঘোষণা দিয়েছেন, কানাডিয়ানরা যে পরিমাণ অর্থ দেবেন, এক মিলিয়ন ডলার পর্যন্ত তিনি ও তার স্ত্রী অভিনেত্রী ব্ল্যাক লিভলি সেই তহবিলে যুক্ত করবেন।

সংলাপ ২৮/০২/০০৫ আজিজ

সম্পর্কিত পোস্ট