মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১

রাতে বাঁচা-মরার ম্যাচে ভারতের মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ

প্রকাশ: ২২ জুন ২০২৪ | ১:১৫ অপরাহ্ণ আপডেট: ২২ জুন ২০২৪ | ১:১৫ অপরাহ্ণ
রাতে বাঁচা-মরার ম্যাচে ভারতের মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে বাড়তি উন্মাদনা নতুন কিছু না। আর সেটা যদি হয়, বিশ্বকাপের মঞ্চ তাহলে রোমাঞ্চের পারদটা আরো একও ধাপ উপরে থাকে! যদিও মাঠের বাইরের উত্তাপ বাইশগজে সেভাবে কখনোই টানতে পারেনি পাকিস্তান। সর্বশেষ চলমান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের গ্রুপপর্বের ম্যাচে রোহিত শর্মাদের বিপক্ষে জিততে জিততেও অবিশ্বাস্যভাবে হেরে গেছে বাবর আজমরা।

বাইশগজে দুই দলের উত্তাপহীন লড়াই দেখেই হয়তো কথাটা বলে ফেলেছিলেন মোহাম্মদ আশরাফুল। তার মতে, দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর লড়াইয়ের থেকে ভারত-বাংলাদেশ ম্যাচ আরও বেশি রোমাঞ্চকর হয়।

ভারত-বাংলাদেশ মানেই এখন চরম লড়াইয়ের আভাস। যদিও ভারতের বিপক্ষে পরিসংখ্যান বাংলাদেশের পক্ষে না থাকলেও, বেশির ভাগ ম্যাচেই আগ্রাসী ও লড়াকু ক্রিকেট খেলেছে টাইগাররা। দু’দল যখনই মুখোমুখি হয়েছে, উত্তেজনাপূর্ণ এবং রোমাঞ্চকর পারফরম্যান্স উপভোগ করেছে ক্রিকেট ভক্তরা। তেমনই এক লড়াইয়ে আজ (শনিবার) রাতে রোহিত শর্মাদের মোকাবিলা করবে শান্ত-সাকিবরা।

গ্রুপপর্বে চার ম্যাচে তিন জয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের ইতিহাসে দ্বিতীয়বারের মতো সুপার এইটে কোয়ালিফাই করে বাংলাদেশ। যদিও সুপার এইটের শুরুটা ভালো হয়নি শান্তদের। বৃষ্টি আইনে অস্ট্রেলিয়ার কাছে ২৮ রানে হেরে গেছে। সেমিফাইনালের আশা বাঁচিয়ে রাখতে অ্যান্টিগার স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডস স্টেডিয়ামে ভারতের বিপক্ষে নামছে টাইগাররা। আজ বাংলাদেশ সময় রাত ৮টা ৩০ মিনিটে শুরু হবে ম্যাচটি।

টাইগারদের জন্য এই ম্যাচটা কার্যত বাঁচা-মরার। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল খেলতে এই ম্যাচে জয়ের কোনো বিকল্প নেই। সংবাদ সম্মেলনে পেসার তাসকিন আহমেদও জানিয়েছেন নিজেদের জয়ের প্রত্যাশার কথা। আশা রাখছেন এখনো শেষ হয়নি সেমি-ফাইনাল খেলার স্বপ্ন।

তাসকিন বলছিলেন, ‘ম্যাসেজ একটাই যে ব্যাটিং-বোলিং দুই বিভাগেই আমাদের এক্সট্রা অর্ডিনারি পারফর্ম করতে হবে, যদি সেমিফাইনাল খেলতে হয়। ভারতের বিপক্ষে স্পেশালি। কারণ এই ম্যাচ হেরে গেলে তখন আর সেমিফাইনাল খেলার স্বপ্নও থাকবে না তাই পরের ম্যাচটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সব ম্যাচেই তো সর্বোচ্চ দিয়ে চেষ্টা করি, ভুলের পরিমাণ কম থাকলেই আশা করি ইতিবাচক কিছু হবে।’

‘অ্যান্টিগা ও বার্বাডোস। এই দুইটা ভেন্যুর উইকেট কিন্তু ভালো। এ ছাড়া অন্য ভেন্যু ও ইউএসএতে সব টিমের ব্যাটারা কম বেশী স্ট্রাগল করেছে। আমরা এর থেকে ব্যাটার ব্যাট করতে পারি, কিন্তু দুর্ভাগ্য যে পারিনি। পারিনাই এটা বলে লাভও নেই যেহেতু পরের ম্যাচটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। ব্যাটিং-বোলিং দুইটাই ভালো করতে হবে কারণ ইন্ডিয়া বিশ্বের অন্যতম সেরা দল। ওদের সঙ্গে খেলতে হলে আমাদের এক্সট্রা অর্ডিনারি কিছু করতে হবে।’- আরও যোগ করেন এই পেসার।

অন্যদিকে, বাংলাদেশের বিপক্ষে জিতলে সেমিফাইনালে এক পা দিয়ে রাখবে ভারত। সুপার এইটে নিজেদের প্রথম ম্যাচে আফগানিস্তানকে ৪৭ রানে হারিয়েছে তারা। ম্যাচের আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশকে নিয়ে ভারতীয় কোচ বিক্রম রাঠোর বলেন, ‘বাংলাদেশ ভালো দল। তাদের স্পিন বোলিংয়ে দক্ষ অনেকেই আছে যারা এই কন্ডিশনে অনেক ভালো করে। স্পিনারদের জন্য উইকেটে সহায়তা থাকায় তারা সুবিধা পায় এবং তাদের দলে স্পিনারও অনেক। এই ফরম্যাটে প্রতিটি দল কঠিন প্রতিপক্ষ। আমি বিশ্বাস করি টি-টোয়েন্টিতে সহজ ম্যাচ বলে কিছু নেই।’

কন্ডিশন বিবেচনায় এই ম্যাচে ভারত স্পিন নির্ভর একাদশ গঠন করবে বিক্রমের কথায় স্পষ্ট, ‘এই কন্ডিশন আমাদের সাথেও মানানসই, কারণ আমরা একাদশে ২-৩ জন স্পিনার রাখতে পারি। তাই আমি নিজেদের দলকেই সেরা ভাবি। এটাই আমাদের শক্তি।’

এই ফরম্যাটে একে অপরের বিপক্ষে ১৩ ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ-ভারত। এরমধ্যে মাত্র একটি জিতেছে টাইগাররা। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে চারবার দেখা হয়েছে দু’দলের। সব ম্যাচই জিতেছে টিম ইন্ডিয়া। পরিসংখ্যান বাংলাদেশের পক্ষে না থাকলেও, ভারতকে বিপক্ষে ঘুরে দাঁড়ানোর আশা টিম টাইগার্সের।

সম্পর্কিত পোস্ট