রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

আফগানিস্তানে নারী অধিকার রক্ষার আহ্বান

মেয়েদের জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দিতে তালেবানকে মালালার চিঠি

প্রকাশ: ২০ অক্টোবর ২০২১ | ৮:০৯ অপরাহ্ণ আপডেট: ২০ অক্টোবর ২০২১ | ৮:১০ অপরাহ্ণ
মেয়েদের জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দিতে তালেবানকে মালালার চিঠি

আফগানিস্তানে তালেবানের ক্ষমতা দখলের পর থেকে নারীদের প্রতি তাদের রক্ষণশীল দৃষ্টিভঙ্গীর কারনে মাধ্যমিকে অধ্যয়নরত মেয়েদের স্কুলে যাওয়ায় ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।

এমন ঘটনায় বিস্ময় প্রকাশ করে আন্তর্জাতিক মানবধীকার সংস্থাগুলো। সাম্প্রতিক আফগানিস্তানে নারী অধিকার রক্ষা ও মেয়েদের স্কুলে যাওয়া প্রসঙ্গে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে তালেবানের প্রতি আহবান জানিয়ে চিঠি লিখেছেন নোবেলজয়ী পাকিস্তানি বংশদূত মালালা ইউসুফজাই। ইতোমধ্যে তালেবান সরকারের এক মুখপাত্র শিগগিরই মেয়েদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার বিষয়ে ইঙ্গিত দেন।

রবিবার মালালা ও আফগান নারী অধিকারকর্মীদের স্বাক্ষরিত একটি খোলা চিঠি প্রকাশিত হয়। এতে বলা হয়, ‘বরাবর; তালেবান কর্তৃপক্ষ, আফগানিস্তানে মেয়েদের শিক্ষার ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার এবং অবিলম্বে মেয়েদের মাধ্যমিক বিদ্যালয় পুনরায় চালু করুন।’

চিঠিতে মালালা, বিশ্বের মুসলিম নেতাদের প্রতি আহবান করে বলেন, আফগানিস্তানই একমাত্র দেশ, যেখানে মেয়েদের শিক্ষার ওপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। তালেবানকে এটা পরিষ্কার করুন যে মেয়েদের স্কুলে যাওয়ার ক্ষেত্রে ধর্ম বাধা হতে পারে না।

উল্লেখ্য, ২০১২ সালে স্কুলে যাওয়ার পথে তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তান জঙ্গি গোষ্ঠীর হামলার শিকার হোন মলালা। পরবর্তী নারী অধীকার প্রতিষ্ঠায় শান্তিতে নোবেল ২০১৪ পুরস্কার পান। বর্তমানে তিনি তাঁর দাতব্য সংস্থা মালালা ফান্ডের মাধ্যমে নারী শিক্ষা সম্প্রসারণে কাজ করছেন। তাঁর সংস্থা থেকে আফগানিস্তানে মেয়েদের শিক্ষা বিস্তারে ২০ লাখ মার্কিন ডলারের সহায়তা প্রধান করেছে।

সম্পর্কিত পোস্ট