বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১

মাথাপিছু জিডিপিতে এবারও ভারতের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ

প্রকাশ: ১৪ অক্টোবর ২০২১ | ১০:৪৬ অপরাহ্ণ আপডেট: ১৪ অক্টোবর ২০২১ | ১০:৪৬ অপরাহ্ণ
মাথাপিছু জিডিপিতে এবারও ভারতের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ

আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ) বিশ্ব অর্থনীতির গতি-প্রকৃতি নিয়ে তাদের সর্বশেষ ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক আউটলুকে বলেছে, এ বছরও বাংলাদেশের মাথাপিছু দেশজ উৎপাদন বা জিডিপি ভারতকে ছাড়িয়ে যাবে। খবর সমকালের।

আইএমএফের প্রাক্কলন হলো, ২০২১ সালে বাংলাদেশের মাথাপিছু জিডিপি হবে ২ হাজার ১৩৯ ডলার। অন্যদিকে ভারতের হবে ২ হাজার ১১৬ ডলার। আইএমএফের হিসাবে গত বছরও বাংলাদেশের মাথাপিছু জিডিপি ভারতকে ছাড়িয়েছিল।

আইএমএফের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চলতি মূল্যে ২০২১ সালে বাংলাদেশের জিডিপির আকার দাঁড়াবে প্রায় ৩৫৬ বিলিয়ন ডলার। ভারতে জিডিপির আকার হবে ২ হাজার ৯৪৬ বিলিয়ন ডলার। ভারতের জিডিপি বাংলাদেশের তুলনায় প্রায় ৯ গুণ বেশি। তবে জিডিপিকে জনসংখ্যা দিয়ে ভাগ করলে মাথাপিছু যে পরিমাণ দাঁড়ায় তাতে বাংলাদেশ এগিয়ে থাকবে।

অবশ্য তুলনামূলক আলোচনার ক্ষেত্রে ডলারের বিপরীতে মুদ্রার বিনিময় হার বিবেচ্য। ভারত সাম্প্রতিক সময়ে তার মুদ্রাকে ব্যাপকভাবে অবনমন করেছে।

অথচ বাংলাদেশের টাকার দর কমেছে। ফলে জাতীয় আয়কে ডলারে রূপান্তরের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের এগিয়ে থাকার ক্ষেত্রে সহায়ক হয়েছে।\হএদিকে ক্রয় ক্ষমতা সমতা (পিপিপি) বিবেচনায় বাংলাদেশের চেয়ে ভারতে মাথাপিছু জিডিপি বেশি।

২০২১ সালেও তা বেশি থাকবে বলে আইএমএফের প্রাক্কলন রয়েছে। এর অর্থ, একই পরিমাণ অর্থ দিয়ে বাংলাদেশের চেয়ে ভারতে বেশি পণ্য কেনা যায়। ভারতের নাগরিকদের প্রকৃত ক্রয়ক্ষমতা বাংলাদেশের চেয়ে বেশি। পিপিপি ভিত্তিতে বাংলাদেশের মাথাপিছু জিডিপি প্রাক্কলন করা হয়েছে ৫ হাজার ২৪৬ ডলার। ভারতের হতে পারে ৬ হাজার ৬৯৩ ডলার।

আইএমএফ মনে করছে, চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরে বাংলাদেশের জিডিপির প্রবৃদ্ধি হবে ৬ দশমিক ৫ শতাংশ। অন্যদিকে ভারতের প্রবৃদ্ধি প্রাক্কলন করা হয়েছে ৮ দশমিক ৫ শতাংশ। ভারতে গত অর্থবছরে ৮ শতাংশের মতো কমে গিয়েছিল।

সম্পর্কিত পোস্ট