শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০

ভোট নিয়ে কোনো অভিযোগ নেই : সিএমপি কমিশনার

প্রকাশ: ২৭ এপ্রিল ২০২৩ | ২:৫৯ অপরাহ্ণ আপডেট: ২৭ এপ্রিল ২০২৩ | ২:৫৯ অপরাহ্ণ
ভোট নিয়ে কোনো অভিযোগ নেই : সিএমপি কমিশনার

চট্টগ্রাম-৮ (চান্দগাঁও-বোয়ালখালী) আসনের উপনির্বাচনে ভোট গ্রহণ নিয়ে কোনো প্রার্থীর কোনো ধরনের অভিযোগ নেই বলে মন্তব্য করেছেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) কমিশনার কৃষ্ণ পদ রায়। বৃহস্পতিবার দুপুরে চট্টগ্রাম নগরের বিভিন্ন কেন্দ্র পরিদর্শনের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

সিএমপি কমিশনার বলেন, ভোট দিতে পারছে না এরকম কোনো পরিস্থিতি হয়নি। নিরাপদ পরিবেশে ভোট গ্রহণ চলছে। আমরা আশা করছি, শেষ পর্যন্ত এরকমই থাকবে। কোনো প্রার্থীর কোনো অভিযোগ পাইনি। খোঁজখবর নিয়ে দেখেছি সব জায়গায় বিভিন্ন প্রার্থীর এজেন্ট রয়েছে। নিরাপত্তার দায়িত্বে পুলিশের পাশাপাশি বিজিবি, র‍্যাব ও আনসার বাহিনী কাজ করছে৷ এছাড়াও জুডিশিয়াল এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা তাদের দায়িত্ব পালন করছেন।

সকাল ৮টায় ১৯০টি কেন্দ্রের ১ হাজার ৪১৪টি কক্ষে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ শুরু হয়।

নির্বাচনের শুরুতে সকালে নৌকার প্রার্থী নোমান আল মাহমুদ বহদ্দারহাট এখলাছুর রহমান সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভোট দেন। এ সময় তিনি জয়ের ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তবে মোমবাতি প্রতীকের প্রার্থী বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের স উ ম আব্দুস সামাদ বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে তার নির্বাচনী এজেন্ট বের দেওয়ার অভিযোগ তুলেছেন।

বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা থেকে দুদগ্রাম নগরের চান্দগাঁওয়ের শমসের পাড়া হাজী চাঁন্দ মিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বহদ্দারহাটের এখলাছুর রহমান সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, চান্দগাঁও সিডিএ পাবলিক স্কুল, বায়েজিদ বোস্তামী থানার রিডার্স স্কুল, পাঁচলাইশের রহমানিয়া উচ্চ ও জামিয়া সুন্নিয়া মাদ্রাসাসহ কয়েকটি কেন্দ্রে ঘুরে তেমন কোনো ভোটারের উপস্থিতি দেখা যায়নি। অলস বসে থাকতে দেখা যায় নির্বাচনে ভোট গ্রহণের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তাদের। তবে বিভিন্ন কেন্দ্রের বাইরে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের অবস্থান করতে দেখা গেছে। এছাড়াও বোয়ালখালী উপজেলার কয়েকটি কেন্দ্রে খোঁজ নিয়ে একই অবস্থা বলে জানা যায়।

চট্টগ্রাম আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান বলেন, নির্বাচন ঘিরে এখনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। কোনো প্রার্থীর অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পর্যাপ্ত পুলিশ, আনসার ও র‍্যাব মোতায়েন রয়েছে। পাশাপাশি জুডিশিয়াল এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করছেন।

জানা গেছে, নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকে নোমান নোমান আল মাহমুদ, চেয়ার প্রতীকে ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশের সৈয়দ মুহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন, মোমবাতি প্রতীকে বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের সেহাব উদ্দিন মুহাম্মদ আব্দুস সামাদ, আম প্রতীকে ন্যাশনাল পিপলস পার্টি- এনপিপির কামাল পাশা এবং একতারা প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী রমজান আলী মাঠে রয়েছেন।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে, এবারের নির্বাচনে পাঁচ লাখ ১৭ হাজার ৬৫২ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগের সুযোগ পাবেন। এদের মধ্যে পুরুষ ভোটার দুই লাখ ৬৩ হাজার ৫৪৩ জন ও নারী ভোটার দুই লাখ ৫৪ হাজার ১০৯ জন।

গত ৫ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর একটি হাসপাতালে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সংসদ সদস্য মোছলেম উদ্দিন আহমদ মৃত্যুবরণ করেন। এরপর আসনটি শূন্য ঘোষণা করে সংসদ সচিবালয়। পরে আসনশূন্য ঘোষণার গেজেট ইসিতে এলে নির্বাচনের দিনক্ষণ ঠিক করে কমিশন।

সম্পর্কিত পোস্ট