সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১

ভারত-প্রোটিয়া ফাইনালে রোমাঞ্চ ছড়াবে যে ৫ দ্বৈরথ

প্রকাশ: ২৯ জুন ২০২৪ | ১১:৩৮ পূর্বাহ্ণ আপডেট: ২৯ জুন ২০২৪ | ১১:৩৮ পূর্বাহ্ণ
ভারত-প্রোটিয়া ফাইনালে রোমাঞ্চ ছড়াবে যে ৫ দ্বৈরথ

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের নবম আসরে দুই অপরাজেয় দল ‍উঠেছে শিরোপা নির্ধারণী ফাইনালে। আসরের সবচেয়ে আকর্ষণীয় ম্যাচটিতে আজ (শনিবার) মুখোমুখি দুই পরাশক্তি ভারত এবং দক্ষিণ আফ্রিকা। দুই দলের অতীত লড়াইয়ে চোখ রাখলে দেখা যায়– ভারত প্রথাগতভাবে বরাবরই তাদের শক্তিশালী ব্যাটিং লাইনআপ ঢাল হয়ে দাঁড়ায়। অপরদিকে, দক্ষিণ আফ্রিকার বড় শক্তির জায়গা তাদের পেস বোলিং। এবারের ফাইনালেও তেমনই দ্বৈরথ দেখা যেতে পারে। উত্তেজনা পারদ উঁচুতে তুলতে পারে পাঁচ জুটির লড়াই!

আজ বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৮টায় বার্বাডোজের কেনসিংটনে শিরোপা নির্ধারণী ফাইনালে মুখোমুখি হবে ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা। দুই দলই চলতি বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত অপরাজিত আছে। ফলে এইডেন মার্করাম ও রোহিত শর্মার মধ্যে কে সেই অনবদ্য ফলাফল ধরে রেখে বিজয়োল্লাসে মাতেন, সেটাই দেখার অপেক্ষা!

বিশ্বকাপের সেরা দল বাছাইয়ের ম্যাচে রোমাঞ্চ ছড়াতে পারেন বেশ কয়েকটি জুটি। এর বাইরেও অবশ্য সূর্যকুমার যাদব, এনরিখ নরকিয়াদের মতো ক্রিকেটাররা ম্যাচে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারেন। উভয় দলের উল্লেখযোগ্য তারকাদের মধ্যকার দ্বৈরথ একনজরে দেখে নেওয়া যাক—

বিরাট কোহলি বনাম কাগিসো রাবাদা

বর্তমানে বিশ্ব ক্রিকেটের ভারত-প্রোটিয়া দলের এই দুই ক্রিকেটার অন্যতম সেরা। নিজ নিজ বিভাগে দাপট দেখিয়ে আসছেন বিরাট কোহলি এবং কাগিসো রাবাদা।‌ যদিও এই বিশ্বকাপে একেবারেই ফর্মে নেই বিরাট কোহলি। সাত ম্যাচে করেছেন মাত্র ৭৫ রান। গড় মাত্র ১০.৭১। সেই তুলনায় রাবাদা মোটামুটি ভালো ফর্মেই আছেন। আট ম্যাচে মাত্র ৫.৮৮ ইকোনমিতে নিয়েছেন ১২টি উইকেট। পাওয়ারপ্লে এবং ডেথ ওভারে বেশ ভালো বোলিং করছেন এই প্রোটিয়া গতিতারকা। টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে রাবাদা-কোহলি মুখোমুখি হয়েছেন ১৩ বার। যার মধ্যে কোহলি ৫১ রান করেছেন এবং আউট হয়েছেন চারবার।

রোহিত শর্মা বনাম মার্কো জানসেন

চলতি আসরে দারুণ ফর্মে আছেন ভারতীয় অধিনায়ক রোহিত শর্মা। তবে বাঁ-হাতি পেসারদের বিপক্ষে তার বরাবরই দুর্বলতা দেখা যায়। মোহাম্মদ আমির ও শাহিন শাহ আফ্রিদিদের বিপক্ষে তাকে বেশ সমস্যায় পড়তে দেখা গেছে। সেক্ষেত্রে ফাইনালে তার জন্য হুমকি হতে পারে উচ্চতায় বেশ লম্বা বাঁ-হাতি প্রোটিয়া পেসার মার্কো জানসেন। এই টুর্নামেন্টে ভালো ফর্মে রয়েছেন জানসেন। হয়তো উইকেটসংখ্যা দেখে সেটি আঁচ করা যাবে না, ৮ ম্যাচে তিনি ৬ উইকেট শিকার করেছেন। এর আগে ৯ বার মুখোমুখি হয়েছেন জানসেন-রোহিত। মাত্র একবার আউট হয়েছেন রোহিত, করেছেন ১১৩ রান।

ঋষভ পান্ত বনাম কেশব মহারাজ

ভারতের বাঁ-হাতি উইকেটরক্ষক ব্যাটার ঋষভ পান্ত আগের মতোই আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করছেন চলতি বিশ্বকাপে। যদিও গ্রুপপর্বের মতো সুপার এইটের শেষ ম্যাচ ও নকআউটে তিনি জ্বলে উঠতে পারেননি। তবে পেস হোক বা স্পিন তিনি যে মারকুটে মেজাজে ব্যাট করতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন, সেটি কারও অজানা নয়। বিশেষ করে বাঁ-হাতি স্পিনারদের বিপক্ষে স্টেপ আউট করে মারতে তিনি বেশ সিদ্ধহস্ত। চলতি বিশ্বকাপে পান্ত ৭ ম্যাচে ১২৯ স্ট্রাইকরেটে ১৭১ রান করেছেন। অন্যদিকে মহারাজ নিয়েছেন ৯ উইকেট। ফলে এই লড়াইও বেশ জমজমাট হতে চলেছে।

অক্ষর প্যাটেল/কুলদীপ যাদব বনাম ক্লাসেন

প্রোটিয়াদের উইকেটরক্ষক ব্যাটার হেনরিখ ক্লাসেন আগ্রাসী ব্যাটিংয়ের জন্য বেশ পরিচিত। যদিও এবার সেভাবে নামের প্রতি সুবিচার করতে পারছেন না। তবে ফাইনালের মতো বড় মঞ্চে তার দিকে তাকিয়ে এইডেন মার্করামের প্রোটিয়া শিবির। স্পিনারদের বিপক্ষে ক্লাসেন আক্রমণাত্মক ব্যাট করতে সিদ্ধহস্ত। অন্যদিকে, চলতি বিশ্বকাপে বেশ ভালো ফর্মে রয়েছেন কুলদীপ যাদব এবং অক্ষর প্যাটেল। এখন পর্যন্ত আটটি ম্যাচ খেলে ক্লাসেন ১১২ স্ট্রাইকরেটে করেছেন ১৩৮ রান। কুলদীপ, অক্ষররাও বেশ মিতব্যয়ী বোলিং করছেন। পাশপাশি ব্রেকথ্রু এনে দিচ্ছেন দলের প্রয়োজনে। ফলে ক্লাসেনের সঙ্গে প্যাটেল কিংবা কুলদীপের দ্বৈরথও বেশ উত্তেজনাকর হতে পারে।

জাসপ্রিত বুমরাহ বনাম কুইন্টন ডি কক

ভারত তো বটেই বিশ্ব ক্রিকেটের ইতিহাসে অন্যতম সেরা পেসার জাসপ্রিত বুমরাহ। যেকোনো উইকেটে তিনি প্রতিপক্ষ ব্যাটারদের মাঝে ত্রাস ছড়িয়ে পারেন। ফলে তাকে খেলাটা মোটেও সহজ ব্যাপার নয়। পাশাপাশি চলতি বিশ্বকাপে মোটামুটি ফর্মে রয়েছেন কুইন্টন ডি কক। দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক তিনি, যদিও সেটি ঠিক তার নামের প্রতি ন্যায্য নয়। আট ম্যাচে ১৪৩ স্ট্রাইকরেটে ডি কক ২০৪ রান করেছেন। অন্যদিকে, বুমরাহ এখন পর্যন্ত নিয়েছেন ১৩ উইকেট। ইকোনমি রেট মাত্র ৪.১২। ফলে ম্যাচের রোমাঞ্চ বাড়াতে গুরুত্বপূর্ণ একটি লড়াই হতে যাচ্ছে বুমরাহ-ডি ককের মাঝে।

সম্পর্কিত পোস্ট