বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

ভাতিজার ছোড়া এসিডে ঝলসে গেল চাচার মুখ

প্রকাশ: ৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২ | ১০:০২ অপরাহ্ণ আপডেট: ৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২ | ১০:০২ অপরাহ্ণ
ভাতিজার ছোড়া এসিডে ঝলসে গেল চাচার মুখ

হবিগঞ্জের মাধবপুরে পারিবারিক ঝগড়ার জের ধরে ভাতিজার ছোড়া এসিডে চাচার মুখ ঝলসে গেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ শনিবার সকালে উপজেলার আম্বারিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত শাহজাহান মিয়াকে (৩৮) সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তরল পদার্থটি অ্যাসিড বলে ধারণা করছেন চিকিৎসকেরা। তবে সেটি অ্যাসিড না অন্য কিছু, তা পরীক্ষার পর নিশ্চিত হওয়া যাবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, আম্বারিয়া গ্রামের জুলেখা বেগমের সঙ্গে তাঁর জা মনোয়ারা বেগমের পারিবারিক বিষয় নিয়ে দুই দিন আগে ঝগড়া হয়। মনোয়ারার স্বামী শাহজাহান মিয়া স্ত্রীর পক্ষ নিয়ে জুলেখা বেগমকে অপমান করেন। জুলেখার ছেলে ফারুক আহম্মেদ নওশাদ (২৬) টাঙ্গাইলে চাকরি করেন। তিনি গত শুক্রবার বাড়ি আসেন। এ সময় জুলেখা ছেলেকে ঝগড়ার বিষয়টি জানান। এতে ক্ষিপ্ত হন ফারুক।

শনিবার সকাল সাড়ে নয়টার দিকে ঘরে প্রবেশ করে তিনি ঘুমন্ত শাহজাহানের ওপর তরল পদার্থ ছুড়ে মারেন। এতে শাহজাহানের মুখ, গলা ও বুক ঝলসে যায়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় স্থানীয় লোকজন তাঁকে মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসা কর্মকর্তা মোক্তাদির হোসেন তালুকদার বলেন, আক্রান্ত ব্যক্তিরা দাবি করেছেন, নিক্ষেপ করা তরল পদার্থ অ্যাসিড। তাঁরাও প্রাথমিকভাবে সেটিই ধারণা করছেন। পরীক্ষার পর জানা যাবে তরল পদার্থটি আসলে কী।

মাধবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুহাম্মদ আবদুর রাজ্জাক বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। তবে নিক্ষেপ করা তরল পদার্থ অ্যাসিড নয়। গরম তেলের সঙ্গে লবণ মিশিয়ে ছোড়া হয়। নিক্ষেপে ব্যবহৃত জগ, ঝলসে যাওয়া মশারিসহ বিভিন্ন আলামত পুলিশ জব্দ করেছে। এগুলো পরীক্ষার পর জানা যাবে অ্যাসিড কি না। এ ঘটনায় এখনো মামলা হয়নি। অভিযুক্তকে আটকের চেষ্টা করছে পুলিশ।

সম্পর্কিত পোস্ট