রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১

ফরাসি পার্লামেন্ট ভেঙে দিলেন ম্যাক্রোঁ, আগাম নির্বাচনের ঘোষণা

প্রকাশ: ১০ জুন ২০২৪ | ২:১৮ অপরাহ্ণ আপডেট: ১০ জুন ২০২৪ | ২:১৮ অপরাহ্ণ
ফরাসি পার্লামেন্ট ভেঙে দিলেন ম্যাক্রোঁ, আগাম নির্বাচনের ঘোষণা

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ দেশটির পার্লামেন্টের নিম্ন কক্ষ বা ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলি ভেঙে দিয়েছেন এবং আগাম নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেছেন। ম্যাক্রোঁ জানিয়েছেন, ৩০ জুন ফ্রান্সে পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষের ভোট হবে। দ্বিতীয় পর্বের ভোট হবে ৭ জুলাই।

রবিবার ইউরোপীয় পার্লামেন্ট নির্বাচনে অতি-দক্ষিণপন্থিদের কাছে হারের পরই ম্যাক্রোঁর আগাম নির্বাচনের ঘোষণা এলো।

ইইউ পার্লামেন্ট নির্বাচনের এক্সিট পোল অনুযায়ী ম্যাক্রোঁর ইইউপন্থি জোট ১৫ শতাংশ ভোট পেয়েছে। অতি-ডানপন্থি ল্য পেনের দল ন্যাশনাল র‍্যালি পেয়েছে ৩০ শতাংশ ভোট।

রবিবার জাতির প্রতি ভাষণে ম্যাক্রোঁ বলেন, ‘আমাদের পার্লামেন্ট নির্বাচনে আপনারা যাতে পছন্দ অনুসারে ভোট দিতে পারেন, তাই আমি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমি ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলি ভেঙে দিলাম।’

তিনি বলেছেন, ‘যারা ইইউ’র পক্ষে তাদের কাছে ইউ পার্লামেন্টের ফলাফলকে ভালো ফল বলা যায় না। আমাদের মহাদেশে অতি-ডানপন্থিরা সব জায়গায় এগোচ্ছে। এই অবস্থায় আমি স্পষ্টীকরণ চাই। আমি আপনাদের বার্তা পেয়েছি, আপনাদের উদ্বেগ দেখছি, আমি তার জবাবও দিতে চাই।’

ম্যাক্রোঁ জানিয়েছেন, ‘এই সিদ্ধান্ত খুবই গুরুতর ও কঠিন ছিল। কিন্তু সবচেয়ে বড় কথা, আমি আপনাদের ওপর বিশ্বাস রেখেছি। আমি এমন ভান করতে পারি না যে, কিছুই হয়নি।’

তিনি দেশবাসীর কাছে অনুরোধ করেন, ‘তারা যেন বিপুল সংখ্যায় ভোট দেয়। কারণ জাতীয়তাবাদী এবং অতি-ডানপন্থিদের উত্থান কেবল আমাদের জাতির জন্যই নয়, ইউরোপের জন্যও বিপজ্জনক।’

এদিকে অতি-ডানপন্থি ন্যাশনাল র‍্যালির নেতা ল্য পেন ম্যাক্রোঁর সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, ‘ফ্রান্সের মানুষ যদি আমাদের ওপর ভরসা রাখেন, তাহলে আমরা দায়িত্ব নেওয়ার জন্য প্রস্তুত।’

ন্যাশনাল র‍্যালির নেতা ও ইউরোপীয় পার্লামেন্ট নির্বাচনে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ প্রার্থী জর্ডন বারদিলা বলেছেন, ‘মাক্রোঁর নেতৃত্ব এখন দুর্বল হয়ে গেছে। ফ্রান্সের পার্লামেন্টে তার সংখ্যাগরিষ্ঠতা ছিল না। ইউরোপীয় পার্লামেন্টেও তার শক্তি কমে গেল।’

ফ্রান্সের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট নির্বাচন হবে ২০২৭ সালে।

সম্পর্কিত পোস্ট