মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১

প্রবাসীদের হয়রানি-গ্রেপ্তারে জিএসসি সাউথইস্ট রিজিওনের প্রতিবাদ

প্রকাশ: ১১ অক্টোবর ২০২২ | ৬:৫২ অপরাহ্ণ আপডেট: ১১ অক্টোবর ২০২২ | ৬:৫২ অপরাহ্ণ
প্রবাসীদের হয়রানি-গ্রেপ্তারে জিএসসি সাউথইস্ট রিজিওনের প্রতিবাদ

যুক্তরাজ্যের সাত প্রবাসী ব্যবসায়ীকে বাংলাদেশে চক্রান্তমূলক মামলায় হয়রানি ও গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে গ্রেটার সিলেট ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড ওয়েলফেয়ার কাউন্সিল (জিএসসি) সাউথইস্ট রিজিওনের উদ্যোগে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) লন্ডনে সংগঠনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভার সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের চেয়ারপারসন এম এ আজিজ।

সাধারণ সম্পাদক ফজলুল করিম চৌধুরীর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন জিএসসির পেট্রন ড. হাসনাত হোসেইন এমবিই ও কে এম আবু তাহের চৌধুরী, সাউথইস্ট রিজিওনের সাবেক চেয়ারপারসন মুহাম্মদ ইছবাহ উদ্দিন, জিএসসি কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আব্দুল কাইয়ূম কায়ছার, ভয়েস ফর নিউহামের চেয়ারপারসন পারভেজ কোরেশী এমবিই, সাউথইস্ট রিজিওনের সহ সভাপতি কাউন্সিলর ফয়জুর রহমান, কাউন্সিলর জোৎস্না ইসলাম, সাউথইস্ট রিজিওনের কোষাধ‍্যক্ষ সূফী সোহেল আহমদ, সাবেক কাউন্সিলার মামুনুর রশীদ ও কাউন্সিলর রুহুল আমিন, আখলাকুর রহমান।

এছাড়াও জিএসসি ইস্ট লন্ডন শাখার চেয়ারপারসন আব্দুল মালিক কুটি, কোষাধক্ষ্য মো. আবুল মিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ জিল্লুল হক, সদস্য-সম্পাদক সালেহ আহমেদ (আলফু), ওয়েলফেয়ার সেক্রেটারি ফারুক মিয়া, যুব-সম্পাদক সালেহ আহমদ, ক্রীড়া-সম্পাদক আজম আলী, সাউথইস্ট রিজিওনের সদস্য কাজী তাজ উদ্দিন আকমল, জনজীবন সম্পাদক ছমির উদ্দিন, মওলানা আব্দুল কুদ্দুছ, এসেক্স শাখার সিদ্দিকুর রহমান কোরাইশী, মিডেলসেক্স শাখার সৈয়দ করিম, জামান সিদ্দিকী, খন্দকার সাইদুজ্জামান সূমন, বাদশাহ মিয়া, মফাজ্জুল আলী, মো. ইরফান আলী, মো. জগম্ভর আলী, কমিউনিটি একটিভিস্ট মো. ইছতাব উদ্দিন আহমদ, গণমাধ্যমকর্মী সৈয়দ আবু সায়েম করিম, সমাজকর্মী এ মনাফ, আব্দুল হালিম চৌধুরী, কমিউনিটি এক্টিভিস্ট ফয়সল শাহ, লেবার পার্টি সদস্য ও সমাজ কর্মী শাহান চৌধুরী, মো. গিয়াস উদ্দিন, মো. আব্দুল বারী জসিম, সাংবাদিক কয়েছ আহমদ, মো. মছরুল হক।

সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন সংগঠনের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক কামরুল হাসান চৌধুরী।

বক্তারা বলেন, প্রবাসী রেমিট্যান্স যোদ্ধাদের জান-মাল, সহায়-সম্পদ ও বিনিয়োগের নিরাপত্তা দিতে সরকার ব্যর্থ হলে প্রবাসীরা দেশে রেমিট্যান্স প্রেরণ ও কর্মসংস্থানের উদ্দেশ্যে শিল্প স্থাপনায় বিনিয়োগে উৎসাহ হারিয়ে ফেলবে। পাসপোর্টে দূতাবাস থেকে নো-ভিসা স্টিকার ও পাওয়ার অব অ্যাটর্নি প্রদানে আইনি জটিলতা ও এয়ারপোর্টে প্রবাসীদের হয়রানি বন্ধে সরকারকে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করার দাবি জানান।

এছাড়াও বৈদেশিক মুদ্রা উপার্জনকারী এবং দেশে কর্মসংস্থানের জন্য বিনিয়োগকারী প্রবাসীদের চক্রান্তমূলক মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রেপ্তার ও নির্যাতনের বিরুদ্ধে গভীর ক্ষোভ প্রকাশ করে তীব্র প্রতিবাদ জানানো হয়। প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের বিরুদ্ধে সাজানো মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে প্রকৃত দোষী ষড়যন্ত্রকারীদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানের জন্য বাংলাদেশ সরকারের কাছে জোর দাবি জানানো হয়।

সভা শেষে মুসলিম উম্মাসহ জিএসসির নেতাকর্মী ও সদস্যদের সুস্থতা এবং প্রয়াত নেতাদের ও সদস্যদের জন্য দোয়া করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন সংগঠনের পেট্রন কে এম আবু তাহের চৌধুরী।

সম্পর্কিত পোস্ট