শুক্রবার, ১ মার্চ ২০২৪, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০

দ্বিতীয় দিন শেষে ফলোঅনের শঙ্কায় বাংলাদেশ

প্রকাশ: ১৫ ডিসেম্বর ২০২২ | ৫:৩০ অপরাহ্ণ আপডেট: ১৫ ডিসেম্বর ২০২২ | ৫:৪০ অপরাহ্ণ
দ্বিতীয় দিন শেষে ফলোঅনের শঙ্কায় বাংলাদেশ

চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম ইনিংসে ফলোঅনের শঙ্কায় পড়েছে বাংলাদেশ। প্রথম ইনিংসে ভারতের করা ৪০৪ রানের জবাবে দ্বিতীয় দিন শেষে সাকিব আল হাসানের দলের সংগ্রহ ৮ উইকেটে ১৩৩ রান। ফলোঅন থেকে বাঁচতে আরও ৭১ রান করতে হবে টাইগারদের। আর প্রথম ইনিংসে ভারতের ২৭১ রানে পিছিয়ে বাংলাদেশ।

আজ বৃহস্পতিবার ৬ উইকেটে ২৭৮ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করে ভারত। দ্রুত উইকেট তুলে নেয় বাংলাদেশ। ক্যারিয়ারে দ্বিতীয় সেঞ্চুরির পথে থাকা শ্রেয়াস আইয়ারকে সাজঘরে ফেরান এবাদত হোসেন। ১০ চারে ৮৬ রান করেন ডানহাতি এই ব্যাটার। আগের দিনের স্কোরের সঙ্গে মাত্র ৪ রান যোগ করেছিলেন তিনি।

এরপর তাইজুল-এবাদত-মিরাজের সামনে প্রতিরোধ গড়েন রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও কুলদীপ যাদব। দুজনের ৮৭ রানের জুটিতে ৪০০’র স্কোর পায় ভারত। দেখে শুনে খেলে ক্যারিয়ারের ১৩তম অর্ধশতক করেন অশ্বিন।

ব্যক্তিগত ৫৮ রানে মিরাজের শিকার হন তিনি। এ ছাড়া কুলদীপ যাদব ৪০ এবং উমেশ যাদব ১৫ রান করেন। প্রথম ইনিংসে ৪০৪ রানে অলআউট হয় ভারত। ৪টি করে উইকেট নেন তাইজুল ইসলাম ও মেহেদী হাসান মিরাজ।

প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে খেই হারিয়ে ফেলে বাংলাদেশ। দ্রুত টপ অর্ডার হারিয়ে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে স্বাগতিকরা। এরই মধ্যে সাজঘরে ফিরেছেন বাংলাদেশের ৫ ব্যাটার। প্রথম ওয়ানডের মতোই টেস্টেও প্রথম বলে সাজঘরে ফেরেন নাজমুল হোসেন শান্ত।

মোহাম্মদ সিরাজের বলে উইকেটের পেছনে ঋষভ পান্তর হাতে ধরা পড়েন বাঁহাতি এই ব্যাটার। আর তিন নম্বরে ব্যাট করতে এসে উমেশ যাদবের শিকার হন ইয়াসির আলী রাব্বি (৪)।

দুর্দান্ত শুরু করেছিলেন লিটন দাস। উমেশ যাদবের এক ওভারে হ্যাটট্রিক বাউন্ডারি হাঁকিয়ে লম্বা ইনিংস খেলার আভাস দেন। কিন্তু ৩০ বলে ২৪ রান করে মোহাম্মদ সিরাজের দ্বিতীয় শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরেন লিটন। অভিষিক্ত জাকির হাসান (২০) খেলছিলেন সাবধানতার সঙ্গে। কিন্তু তিনিও মোহাম্মদ সিরাজের শিকার হন।

দলের চূড়ান্ত বিপদ ডেকে আনেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। ব্যক্তিগত ৩ রানে কুলদীপ যাবদের শিকার হন টাইগার দলপতি। এরপর কুলদীপ যাবদের শিকার হন মুশফিকুর রহিম (২৮), নুরুল হাসান সোহান (১৬) এবং তাইজুল ইসলাম (০)।

মেহেদী হাসান মিরাজ এবং এবাদত হোসেন দিনের বাকি সময়টা শেষ করেন। দিন শেষে মিরাজ ১৬ এবং এবাদত ১৩ রানে অপরাজিত আছেন। কুলদীপ ৪টি এবং সিরাজ নেন ৩টি উইকেট।

সম্পর্কিত পোস্ট