মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১

তুরস্কে ‘বাংলাদেশের জনগণ, প্রকৃতি ও উন্নয়ন’ নিয়ে আলোকচিত্র প্রদর্শনী শুরু

প্রকাশ: ২৪ মার্চ ২০২২ | ৬:১৩ অপরাহ্ণ আপডেট: ২৬ মার্চ ২০২২ | ৫:৩৪ অপরাহ্ণ
তুরস্কে ‘বাংলাদেশের জনগণ, প্রকৃতি ও উন্নয়ন’ নিয়ে আলোকচিত্র প্রদর্শনী শুরু

তুরস্কের আঙ্কারায় বাংলাদেশ দূতাবসের উদ্যোগে বাংলাদেশের ওপর সপ্তাহব্যাপী একটি আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করা হয়েছে। বাংলাদেশ দূতাবাস আঙ্কারা ও আঙ্কারা সিটি করপোরেশন সহযোগিতায় “বাংলাদেশের জনগণ, প্রকৃতি ও উন্নয়ন” বিষয়বস্তুুর ওপর “খিজিলাই মেট্রো ইসতাসিওনুর মেট্রো সানাত গ্যালারি” তে “গোল্ডেন জুবলি ও বাংলাদেশের স্বাধীনতা এবং মুজিববর্ষ” উদযাপনের অংশ হিসেবে এ আলোকচিত্র প্রদর্শনীর শুরু হয় গতকাল।

তুরস্কে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মস্য়ূদ মান্নান ও আঙ্কারা সিটি করপোরেশনের ডেপুটি মেয়র সেরজান চিলগিন এদিন যৌথভাবে ফিতা কেটে প্রদর্শনীটির উদ্বোধন করেন। এতে উপস্থিত ছিলেন তুরস্কের বৈদেশিক সম্পর্ক বিভাগের প্রধান রমজান কাবাসাকাল, দূতাবাসের কর্মকর্তা, কর্মচারী ও উভয় দেশের নাগরিকবৃন্দ।

প্রদর্শনীটি আগামী ৩০ মার্চ পর্যন্ত সকলের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। এই প্রদর্শনীটি সাধারণ তুর্কী নাগরিকদের বাংলাদেশের ইতিহাস, সাংস্কৃতিক ও প্রাকৃতিক সৌন্দর্য সম্পর্কে জানতে সাহায্য করবে।

রাষ্ট্রদূত মস্য়ূদ মান্নান তার বক্তব্যে, হাজার বছরের শ্রেষ্ট বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতি, রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড এবং বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় তার অবদানের প্রতি আলোকপাত করেন। এরপর বর্তমান বাংলাদেশের জনগণ, প্রকৃতি ও উন্নয়নের যে সুবিশাল কর্মযজ্ঞ প্রতিফলিত হয়েছে সে বিষয়ের ওপর আলোচনা করেন। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন যে, এই প্রদর্শনী তুরস্কের বন্ধুপ্রতিম জনগণকে বাংলাদেশের রূপকল্প, দর্শন ও মতাদর্শ ও বাংলাদেশের সৌন্দর্য সম্পর্কে জানতে অনুপ্রাণিত করবে।

আঙ্কারার ডেপুটি মেয়র সেরজান চিলগিন তার বক্তব্যে, আঙ্কারা সিটি করপোরেশন ও ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মধ্যে সিস্টার সিটি এগ্রিমেন্ট শিগগিরই সই হবে বলে আশা প্রকাশ করেন। এ ছাড়া বাংলাদেশের বর্তমান অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রার কথা উল্লেখ করে বাংলাদেশ দূতাবাসের সাথে যৌথভাবে এ আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করতে পেরে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

সংলাপ-২৩/০৩/০০৪/আ/আ

সম্পর্কিত পোস্ট