শুক্রবার, ১ মার্চ ২০২৪, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০

ডেঙ্গু পরীক্ষায় ৫০ হাজার কিট দিলো রেড ক্রিসেন্ট

প্রকাশ: ১০ আগস্ট ২০২৩ | ৮:৪৭ অপরাহ্ণ আপডেট: ১০ আগস্ট ২০২৩ | ৮:৪৭ অপরাহ্ণ
ডেঙ্গু পরীক্ষায় ৫০ হাজার কিট দিলো রেড ক্রিসেন্ট

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালকে ৫০ হাজার এনএস-১ ডেঙ্গু টেস্টিং কিট দিয়েছে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি।

বৃহস্পতিবার (১০ আগস্ট) রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির জাতীয় সদর দপ্তরে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এসব কিট গ্রহণ করেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংক্রামক রোগ নিয়ন্ত্রণ (সিডিসি) বিভাগের পরিচালক অধ্যাপক ডা. নাজমুল ইসলাম। কিট তুলে দিয়েছেন বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) এটিএম আবদুল ওয়াহ্‌হাব।

অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকে ৩৫ হাজার, হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালকে ১০ হাজার এবং রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালের রোগীদের চিকিৎসার সুবিধার্তে আরও ৫ হাজার ডেঙ্গু টেস্টিং কিট হস্তান্তর করা হয়েছে।

রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান এটিএম আবদুল ওয়াহ্‌হাব বলেন, চলমান ডেঙ্গু পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকারের সহযোগী প্রতিষ্ঠান হিসেবে প্রতিরোধ ও সচেতনতামূলক বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি। তারই অংশ হিসেবে সহজে ডেঙ্গু শনাক্ত করতে কিট প্রদানের উদ্যোগ নিয়েছি আমরা। চলমান পরিস্থিতি অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনায় নিয়ে আমরা স্বেচ্ছাসেবকদের প্রতিরোধ ও সচেতনতামূলক বিভিন্ন কাজে নিয়োজিত করেছি।

এসময় অধ্যাপক ডা. নাজমুল ইসলাম বলেন, ডেঙ্গু চিকিৎসায় দ্রুততম সময়ের মধ্যে ডেঙ্গু শনাক্ত করতে পারলে ঝুঁকি অনেকটাই এড়ানো সম্ভব। তাই ডেঙ্গু চিকিৎসায় এনএস-১ কিটের প্রয়োজনীয়তা অপরিহার্য। রেড ক্রিসেন্ট থেকে প্রাপ্ত কিট চলমান ডেঙ্গু পরিস্থিতি মোকাবিলায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে।
অনুষ্ঠানে ডেঙ্গু প্রতিরোধে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির বিভিন্ন কর্মসূচির বিস্তারিত তুলে ধরা হয়। ইতোমধ্যে ডেঙ্গু পরিস্থিতি মোকাবিলায় আন্তর্জাতিক জরুরি সাড়াপ্রদান তহবিল থেকে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটিকে ৩ কোটি ৮০ লাখ টাকা সহায়তা দিয়েছে ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অব রেড ক্রস অ্যান্ড রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটিস (আইএফআরসি)। শিক্ষার্থীদের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধি ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে সচেতনতামূলক বার্তা পৌঁছে দিতে কাজ করছে সোসাইটির প্রশিক্ষিত যুব স্বেচ্ছাসেবকরা। সোসাইটির পক্ষ থেকে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে মশারি বিতরণ করা হয়। এছাড়াও বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির নয়টি রক্ত কেন্দ্র জরুরি সেবা দিয়ে যাচ্ছে।

বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ডিজাস্টার রেসপন্স বিভাগের পরিচালক মো. মিজানুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সোসাইটির মহাসচিব কাজী শফিকুল আযম এবং আইএফআরসি’র হেড অব ডেলিগেশন সঞ্জীব কুমার কাফলে। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন সোসাইটির উপ-মহাসচিব সুলতান আহমেদ, বিভিন্ন বিভাগের পরিচালকবৃন্দ, পার্টনার ন্যাশনাল সোসাইটির প্রতিনিধিবৃন্দসহ বিডিআরসিএস, আইএফআরসি ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা।

সম্পর্কিত পোস্ট