শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১

ডুবে যাওয়া লাইটারেজ জাহাজের এক নাবিকের মরদেহ উদ্ধার

প্রকাশ: ২১ মার্চ ২০২২ | ৫:০০ অপরাহ্ণ আপডেট: ২১ মার্চ ২০২২ | ৫:০০ অপরাহ্ণ
ডুবে যাওয়া লাইটারেজ জাহাজের এক নাবিকের মরদেহ উদ্ধার

চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙরে পারকি বিচ এলাকায় এমভি টিটু-১৪ নামে লাইটারেজ জাহাজ ডুবির ঘটনায় এক নাবিকের মরদেহ উদ্ধার করেছে নৌপুলিশ। এই ঘটনায় নিখোঁজ আরও তিন নাবিকের সন্ধান মেলেনি। এছাড়া জাহাজ ডুবির ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৮ নাবিককে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে।

সোমবার (২১ মার্চ) দুপুরে চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড উপজেলার ভাটিয়ারি ইউনিয়নের সাগর উপকূল এলাকা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়েছে। মরদেহটি আবুল খায়ের গ্রুপের জাহাজ এমভি টিটু-১৪ এর নাবিক লস্কর হানিফ শেখের (২৫) বলে নিশ্চিত করেছেন নৌপুলিশের কুমিরা ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক মোহাম্মদ একরাম উল্লাহ।

তিনি বলেন, ভাটিয়ারি উপকূলীয় এলাকায় একটি মরদেহ ভাসছে বলে স্থানীয়দের কাছ থেকে সংবাদ শুনে ঘটনাস্থলে যাই। এরপর সুরতহাল রিপোর্ট করি। মরদেহের ছবি তুলে আবুল খায়ের গ্রুপের লোকজনের কাছে দিয়েছি। কারণ সাগরে লাইটার জাহাজ ডুবির সংবাদটি আমাদের কাছে ছিল। এছাড়া লাইটারেজ জাহাজ ইউনিয়নের সভাপতি ও সম্পাদককেও ছবি পাঠাই।

তিনি আরও বলেন, প্রথমে চুলের ও মোবাইলের ছবি দেখে আবুল খায়ের গ্রুপের লোকজন মরদেহটি হানিফ শেখের বলে জানায়। পরে উদ্ধার করা মরদেহ দেখে তারা নিশ্চিত হয় এটি ডুবে যাওয়া এমভি টিটু-১৪ এর লস্কর হানিফ শেখের।

পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, দুদিন আগে লাইটারেজ জাহাজটি ডুবির ঘটনা ঘটেছে। এতে মরদেহ পচে গেছে ও মুখমণ্ডল ফুলে বিকৃত হয়ে গেছে। মরদেহটি পরিবারের কাছে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এর আগে বেলা সাড়ে ১১টায় কোস্ট গার্ড পূর্ব জোনের ভারপ্রাপ্ত জোনাল কমান্ডার ক্যাপ্টেন ফাইজ উদ্দিন আহম্মেদ বলেন, আজও কোস্ট গার্ডের উদ্ধার অভিযান চলছে। সাগরে আমাদের দুটি জাহাজ ও চারটি বোট কাজ করছে। অভিযান অব্যাহত রয়েছে। এছাড়া কোস্ট গার্ডের যেসব জোন আছে তারাও খোঁজ নিচ্ছে। অনেক সময় নাবিকরা সাগরে ভেসে থাকেন। সেই বিষয়টি মাথায় রেখে সাগরে নিখোঁজ নাবিকদের খোঁজা হচ্ছে।

শনিবার ভোর ৪টার দিকে এমভি টিটু-১৪ নামের লাইটারেজ জাহাজটি ডুবে যায়। চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙরের পারকি বিচ সংলগ্ন এলাকায় ১২ নাবিক নিয়ে জাহাজটি ডুবে যায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে শনিবার সারাদিন অভিযান চালিয়ে আটজনকে উদ্ধার করে কোস্ট গার্ড। নিখোঁজ থাকেন চার জন।

ডুবে যাওয়া জাহাজটি আবুল খায়ের গ্রুপের। জাহাজটিতে সিমেন্ট তৈরির কাঁচামাল ছিল। এটি বন্দরের বহির্নোঙর থেকে চট্টগ্রাম সিবিচের দিকে যাচ্ছিল। বালুবাহী বার্জের ধাক্কায় লাইটারেজ জাহাজটি ডুবে গেছে বলে জানায় কোস্ট গার্ড।

সম্পর্কিত পোস্ট