মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১

টিকা নিয়ে করোনা হলে তৈরি হচ্ছে ‌সুপার ইমিউনিটি

প্রকাশ: ২২ ডিসেম্বর ২০২১ | ১১:৩৪ পূর্বাহ্ণ আপডেট: ২২ ডিসেম্বর ২০২১ | ১১:৩৪ পূর্বাহ্ণ
টিকা নিয়ে করোনা হলে তৈরি হচ্ছে ‌সুপার ইমিউনিটি

করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে দুই ডোজ টিকা নিয়েও করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর যেন সাধারণ ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। এমন ঘটনায় অনেকেই দুশ্চিন্তায় ভুগলেও গবেষণা বলছে, এটি তাদের জন্য অনেকটা সৌভাগ্যের বিষয়। বুস্টার ডোজ না নিলেও দারুণ সুরক্ষা মিলবে তাদের, এমনটাই বলছে গবেষণা। একে সুপার ইমিউনিটি বলে অভিহিত করেছেন গবেষকরা।

করোনা বিষয়ক গবেষক দলের প্রধান এবং শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের সহকারী অধ্যাপক ডা. আশরাফুল হক মঙ্গলবার ঢাকা পোস্টকে এমন তথ্য দিয়েছেন।

তিনি বলেন, টিকা নেওয়ার পর অনেকে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। ফলে তাদের শরীরে যে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে, তা অন্যদের তুলনায় অনেকাংশে বেশি। এমনকি এই অ্যান্টিবডি কমতে থাকার পরিবর্তে ক্রমান্বয়ে আরও বেড়েছে। যা অনায়াসেই কোনো ব্যক্তিকে এক বছর বা তারও অধিক সময় সুরক্ষা দিতে পারে। একে আমরা বলে থাকি সুপার ইমিউনিটি। একদিকে টিকা নেওয়ার কারণে তার শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়, অন্যদিকে করোনা আক্রান্ত হওয়ার কারণে আবারও অ্যান্টিবডি তৈরি হয়।

আশরাফুল হক বলেন, টিকা নেওয়ার পর করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এমন অনেককেই আমরা পেয়েছি। তাদের মধ্যে যারা এমআরএনএ (ফাইজার, মর্ডানা) টিকা নিয়েছিলেন, তাদের শরীরে অ্যান্টিবডির মাত্রা ১৮ বা তারচেয়ে বেশি। যেখানে অন্যান্য টিকায় বিশেষত, অ্যাস্ট্রাজেনেকার ক্ষেত্রে সাধারণত অ্যান্টিবডির মাত্রা সর্বোচ্চ ১২/১৪ পর্যন্ত পাওয়া যায়।

সম্পর্কিত পোস্ট