মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১

জুনে এলো ৪ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স

প্রকাশ: ১ জুলাই ২০২৪ | ৯:১৮ অপরাহ্ণ আপডেট: ১ জুলাই ২০২৪ | ৯:১৮ অপরাহ্ণ
জুনে এলো ৪ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স

বৈশ্বিক নানা সংকটের মধ্যে চাপে থাকা অর্থনীতিতে বড় ধরনের স্বস্তির খবর এলো প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্সে। সদ্যবিদায়ী জুন মাসে প্রবাসীরা দেশে পাঠিয়েছেন ২৫৪ কোটি ২০ লাখ মার্কিন ডলার। যা গত প্রায় চার বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ। রেমিট্যান্স পালে এমন সুবাতাস দেশের অর্থনীতি ও বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভের জন্য ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

এর আগে একক মাস হিসাবে সর্বোচ্চ ২৫৯ কোটি ৮২ লাখ ডলার রেমিট্যান্স এসেছিল ২০২০ সালের জুলাই মাসে। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের হিসাবে সদ্যবিদায়ী জুন মাসে প্রতিদিন গড়ে দেশে এসেছে ৮ কোটি ৪৭ লাখ মার্কিন ডলার রেমিট্যান্স। এছাড়া সদ্য সমাপ্ত ২০২৩-২৪ অর্থবছরে এসেছে ২৩.৯১৫ বিলিয়ন বা ২ হাজার ৩৯১ কোটি ৫০ লাখ ডলার, যা এ যাবতকালের মধ্যে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স। দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ রেকর্ড রেমিট্যান্স এসেছিল ২০২০-২১ অর্থবছরে ২ হাজার ৪৭৭ কোটি ডলার।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, জুন মাসে কোরবানি ঈদ থাকায় বেড়েছে দেশের প্রবাসী আয়। ঈদের সময়ে দেশে থাকা আত্মীয়স্বজনের কাছে বছরের অন্য মাসের তুলনায় বেশি রেমিট্যান্স পাঠিয়ে থাকেন প্রবাসীরা, যার ব্যতিক্রম হয়নি এবারও।

পাশাপাশি বাংলাদেশ ব্যাংক এক লাফে ডলারের দাম ৭ টাকা বাড়িয়ে ১১৭ টাকা নির্ধারণ করার পর প্রবাসী আয় আসা বেড়েছে।

এর আগে গত মে মাসে দেশে এসেছিল ২২৫ কোটি ৩৮ লাখ ৮০ হাজার মার্কিন ডলার রেমিট্যান্স। আর এপ্রিল, মার্চ, ফেব্রুয়ারি ও জানুয়ারিতে দেশে রেমিট্যান্স এসেছিল যথাক্রমে ২০৪ কোটি ৩০ লাখ ৬০ হাজার, ১৯৯ কোটি ৬৮ লাখ ৫০ হাজার, ২১৬ কোটি ৬০ লাখ ও ২১০ কোটি ৯ লাখ ৫০ হাজার মার্কিন ডলার। গত ডিসেম্বরে ১৯৮ কোটি ৯৮ লাখ ৭০ হাজার মার্কিন ডলার রেমিট্যান্স দেশে পাঠিয়েছিলেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

প্রসঙ্গত, গত ২০২২-২৩ অর্থবছরে রেমিট্যান্স এসেছে ২ হাজার ১৬১ কোটি ৭ লাখ ডলার। আগের ২০২১-২০২২ অর্থবছরে এসেছে ২ হাজার ১০৩ কোটি ১৭ লাখ ডলার। ২০২০-২১ অর্থবছরে রেমিট্যান্স এসেছিল ২ হাজার ৪৭৭ কোটি ৭৭ লাখ ডলার।

সম্পর্কিত পোস্ট