মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

চট্টগ্রাম থেকে জাহাজ যাবে ইতালিতে

প্রকাশ: ৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২ | ৯:১৯ অপরাহ্ণ আপডেট: ৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২ | ৯:১৯ অপরাহ্ণ
চট্টগ্রাম থেকে জাহাজ যাবে ইতালিতে

বাংলাদেশ থেকে সমুদ্রপথে সরাসরি পণ্য যাবে ইউরোপের দেশ ইতালিতে। বিষয়টিকে যুগান্তকারী পদক্ষেপ বলছেন রপ্তানি সংশ্লিষ্টরা। ব্যবসায়ীরা আশা করছেন, সরাসরি যোগাযোগে ইউরোপে রপ্তানি বাড়বে; এতে সময় ও অর্থও বাঁচবে।

শিল্প সংশ্লিষ্ট এবং বন্দরের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এতদিন বাংলাদেশের তৈরি পোশাকসহ বিভিন্ন পণ্য ইউরোপে রপ্তানি হতো অন্য দেশের বন্দর হয়ে। সেখানে অনেকদিন অপেক্ষায় থাকতো হতো বড় জাহাজের বুকিং পেতে। এভাবে বাংলাদেশ থেকে ইউরোপে পণ্য পৌঁছাতে সময় লাগতো ৪০ থেকে ৪৫ দিন, তাছাড়া খরচও বেশি হতো।

সেসব ঝামেলা দূর করতেই চট্টগ্রাম বন্দর থেকে ইতালিতে সরাসরি জাহাজ চলাচল শুরু হচ্ছে। শনিবার (৫ ফেব্রুয়ারি) চট্টগ্রাম বন্দরের এনসিটি জেটি-৪ এ নোঙর করেছে সরাসরি ইতালিগামী প্রথম জাহাজ ‘এমভি সোঙ্গা চিতা’। এ জাহাজে ১৬ থেকে ১৭ দিনেই ইতালিতে পৌঁছে যাবে বাংলাদেশি পণ্য।

এ বিষয়ে চট্টগ্রাম বন্দরের সচিব ওমর ফারুক বলেন, ইতালি থেকে এমভি সোঙ্গা চিতা নামের একটি জাহাজ শনিবার দুপুরে চট্টগ্রাম বন্দরে পৌঁছেছে। জাহাজটিতে ৯৪৫ টিইইউএস (২০ ফুট দৈর্ঘ্যের কনটেইনার সমতুল্য একক) খালি কনটেইনার রয়েছে।

তিনি বলেন, চট্টগ্রাম থেকে ইতালির এই রুটে সরাসরি যোগাযোগ হবে। জাহাজটি পণ্য নিয়ে সোমবার (৭ ফেব্রুয়ারি) চট্টগ্রাম বন্দর ছেড়ে যাবে। এতে রপ্তানি পণ্যের ৯৮ শতাংশই থাকবে গার্মেন্টস পণ্য।

চট্টগ্রাম-ইতালি রুটে সরাসরি জাহাজ চালু হওয়ায় কী কী সুবিধা পাওয়া যাবে— জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটি চালু হওয়ায় কোনো ট্রানজিট লাগবে না, ট্রান্সশিপমেন্ট লাগবে না। আগে সিঙ্গাপুর হয়ে যেতো হতো। কিন্তু এখন জাহাজটি সরাসরি যেতে পারবে। এতে সময় ও অর্থ দুইই বাঁচবে।

তিনি আরও বলেন, এমভি সোঙ্গা চিতা জাহাজটিকে বিশেষ সুবিধা দেওয়া হবে। পণ্য পরিবহন করতে সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হবে যাতে সঠিক সময়ে জাহাজটি সঠিক গন্তব্যে যেতে পারে।

সম্পর্কিত পোস্ট