শুক্রবার, ১ মার্চ ২০২৪, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০

কুয়েতে সশস্ত্র বাহিনী দিবস উদযাপন

প্রকাশ: ২১ নভেম্বর ২০২২ | ৮:৩২ অপরাহ্ণ আপডেট: ২১ নভেম্বর ২০২২ | ৮:৩২ অপরাহ্ণ
কুয়েতে সশস্ত্র বাহিনী দিবস উদযাপন

বাংলাদেশ মিলিটারি কন্টিনজেন্টস বিএমসি টু কুয়েত যথাযোগ্য মর্যাদা ও উৎসব মুখর পরিবেশে সশস্ত্র বাহিনী দিবস উদযাপন করেছে। সোমবার (২১ নভেম্বর) সকাল ৯টায় দেশটির সুবহান সেনাবাহিনীর বিএমসি সদর দপ্তর প্রাঙ্গণে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে দিবসটি উদযাপিত হয়।

অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কমান্ডার বিএমসি, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম ঠাকুর। এরপর কুয়েতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল মোহা. আসিকুজ্জামান সশস্ত্র বাহিনী দিবসের তাৎপর্যতা এবং বাংলাদেশ ও কুয়েতের মধ্যে গৌরবময় বন্ধুত্বপূর্ণ ইতিহাসের ওপর গুরুত্বারোপ করে তার বক্তব্য প্রদান করেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কুয়েত সশস্ত্র বাহিনী প্রধানের পক্ষে অ্যাসিস্ট্যান্ট চিফ অব স্টাফ (অ্যাডমিনিস্ট্রেশন অ্যান্ড ম্যানপাওয়ার ডিপার্টমেন্ট) মেজর জেনারেল ড. খালেদ আলী কান্দারী। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, ১৯৯১ সাল হতে অদ্যাবধি কুয়েত সশস্ত্র বাহিনীর জন্য বাংলাদেশি ডেপুটিগণের অবদান ও আত্মত্যাগের কথা স্মরণ করেন এবং আশাবাদ ব্যক্ত করেন। আগামীতেও  দুদেশের সশস্ত্র বাহিনীর সুসম্পর্ক দৃঢ়তর হবে।

এ সময় কুয়েত সশস্ত্র বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ, বিভিন্ন দেশের প্রতিরক্ষা এর্টাসি ,বাংলাদেশ দূতাবাসের কর্মকর্তাগণ এবং কুয়েতে বসবাসরত বাংলাদেশি কমিউনিটির গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

দিবসটি উপলক্ষে বিএমসির সদস্যগণের মনোমুগ্ধকর ব্যান্ড প্রদর্শনী, শরীর চর্চা ও কুচকাওয়াজ আমন্ত্রিত অতিথিদের মনোমুগ্ধ করে। বাংলাদেশের গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাসকে তারা স্মৃতিপটে ধারণ করে। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর গৌরবময় ইতিহাস এবং বিএমসি টু কুয়েতের কার্যক্রমের ওপর ভিডিও চিত্র প্রদর্শন করা হয়। পাশাপাশি ১৯৭১ সাল থেকে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনী ও ১৯৯১  সাল থেকে বিএমসির ক্রমধারার ওপর একটি দর্শনীয় চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়।

এছাড়া এ দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখতে বিএমসি ম্যাগাজিন ২০২২ এর মোড়ক উন্মোচন করা হয়।

সম্পর্কিত পোস্ট