বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১

কানাডায় সামাজিক কাজের স্বীকৃতি পেলেন ফারজানা হক

প্রকাশ: ১৪ মার্চ ২০২২ | ১:১৫ অপরাহ্ণ আপডেট: ১৪ মার্চ ২০২২ | ১:১৫ অপরাহ্ণ
কানাডায় সামাজিক কাজের স্বীকৃতি পেলেন ফারজানা হক

কানাডার আলবার্টা সরকারের পক্ষ থেকে সামাজিক কর্মকাণ্ডের জন্য স্বীকৃতি পেয়েছেন ফারজানা হক। আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে তিনি এ পুরস্কারের জন্য মনোনীত হন। ক্যালগারি শহরের মেয়র জ্যোতি গোন্ডেক ও যোগাযোগমন্ত্রী রাযন সহনির কাছ থেকে তিনি পুরস্কার গ্রহণ করেন।

ফারজানা হক ২০০৮ সাল থেকে অর্গানাইজেশন অফ ক্যালগারি ক্যাথলিক ইমিগ্রেশন সোসাইটির (সিসিআইএস) একজন দক্ষ কর্মী হিসেবে সুনাম অর্জন করেছেন। ২০১৪ সালে তিনি এই প্রতিষ্ঠানে কালচারাল ব্রোকার হিসেবে নতুন পদ গ্রহণ করেন। যেটা আলবার্টা সরকারের সাথে যৌথভাবে সিসিআইএস পরিচালনা করে।

ফারজানা হক আলবার্টা সরকারের সমাজসেবীদের সঙ্গে কাজ করে নারীদের ভাগ্যোন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন। যেসব নারীরা পারিবারিকভাবে নির্যাতিত-অত্যাচারিত তাদের সহযোগিতা করে নতুন পথ দেখাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন।

ফারজানা হক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর অর্জন করেন এবং আলবার্টা সরকারের সমাজসেবী হিসেবে লাইসেন্সপ্রাপ্ত হয়ে সেবা করে যাচ্ছেন। এছাড়াও তিনি ক্যালগেরি পুলিশ সার্ভিসেস সাউথ এশিয়ান পুলিশ এডভাইজারি বোর্ডের সঙ্গে বাঙালি কমিউনিটির সদস্য হিসেবে সাত বছর সেবামূলক কাজ ও মতামত বিনিময় করার সুযোগ পেয়েছেন।

ফারজানা হক জানিয়েছেন, মা হলো পৃথিবীর সবচেয়ে বড় শিক্ষক। সর্বদা মায়ের কাছ থেকে অনুপ্রেরণা পেয়েছি। মা আমাকে সর্বদা মানুষকে সম্মান করতে শিখিয়েছেন। তিনি দেখিয়েছেন কীভাবে মানুষের সঙ্গে সত্যিকারভাবে শ্রদ্ধার সাথে আচরণ করতে হয়।

তিনি আরও বলেন, কমিউনিটির বিভিন্ন সম্প্রদায়ের সহযোগিতার পাশাপাশি কাজ চালিয়ে নিতে আমার স্বামী ও সন্তানদের থেকেও অনুপ্রেরণা পেয়েছি। যেকোনো কাজের স্বীকৃতি অত্যন্ত আনন্দের। আমি মহান রাব্বুল আলামিনের কাছে দোয়া চাই যেন সমাজসেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখতে পারি। এ স্বীকৃতি দেওয়ায় আলবার্টা সরকারের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।

সংলাপ-১৪/০৩/০০৩/আ/আ

সম্পর্কিত পোস্ট