শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০

এপ্রিল থেকে রাজধানীতে টার্মিনাল ব্যতীত বাস কাউন্টার থাকবে না

প্রকাশ: ১৩ ডিসেম্বর ২০২২ | ৫:৩৮ অপরাহ্ণ আপডেট: ১৩ ডিসেম্বর ২০২২ | ৫:৩৮ অপরাহ্ণ
এপ্রিল থেকে রাজধানীতে টার্মিনাল ব্যতীত বাস কাউন্টার থাকবে না

আগামী বছরের ১ এপ্রিল হতে সায়েদাবাদ, মহাখালী ও গাবতলী বাস টার্মিনাল ব্যতীত ঢাকা শহরে আর কোনো আন্তঃজেলা বাস কাউন্টার রাখা হবে না বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।

মঙ্গলবার (১৩ ডিসেম্বর) ডিএসসিসির প্রধান কার্যালয় নগর ভবনের বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির ২৫তম সভা শেষে তিনি এ তথ্য জানান।
 
ডিএসসিসি মেয়র বলেন, আমাদের যে বাস টার্মিনালগুলো আছে সেগুলোর কার্যকারিতাকে ঠিকমতো বাস্তব রূপ দেওয়া হয় না। এ ব্যাপারে আমরা আরও কঠোর হতে চাই। আমাদের সায়দাবাদ বাস টার্মিনালের সংস্কার চলছে। এটা মার্চ মাসের মধ্যে শেষ হবে। আমরা ১ এপ্রিলে সেটা উদ্বোধন করব। আমাদের মহাখালী ও গাবতলী বাস টার্মিনালের যে সংস্কার প্রয়োজন আছে, সেগুলোরও আমরা উদ্যোগ গ্রহণ করব। আগামী ১ এপ্রিল থেকে ঢাকা শহরে টার্মিনাল ব্যতীত আর কোথাও কোনো কাউন্টার আমরা রাখতে দেব না।

এ কার্যক্রমের মাধ্যমে গণপরিবহন ব্যবস্থাপনা আরও সুসংবদ্ধ হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমরা দেখি জিগাতলায় একটা কাউন্টার, কলাবাগানে একটা কাউন্টার, খিলগাঁওয়ে আরেকটা কাউন্টার। যার যেখানে ইচ্ছা সে সেখানে কাউন্টার খুলে বসে আছে। এতে যানজটের সৃষ্টি হয়। সুতরাং এ বিষয়ে আমরা আরও কঠোর হচ্ছি। আমরা মনে করি এর মাধ্যমে শুধু যাত্রী সেবা নয়, গণপরিবহন ব্যবস্থাপনা আরও সুশৃঙ্খল হবে ও সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার আওতায় নিয়ে আসতে পারব।

ব্যারিস্টার শেখ তাপস বলেন, টার্মিনালগুলোর সঠিক ব্যবহার না করে বাস কাউন্টার সংলগ্ন এলাকায় যত্রতত্র রাস্তা দখল করে বাস রেখে দেওয়া হয়। তখন অজুহাত দেওয়া হয়—এত দূরে কাউন্টার, বাস কীভাবে টার্মিনালে নেব? এখানে দুটো বিষয় একটা হলো টার্মিনালকে সঠিকভাবে ব্যবহার করতে হবে। দ্বিতীয়ত হলো বাস মালিকরা যখন বাস নামান তাদের কিন্তু একটা শর্ত পূরণ করার কথা। তাদের বাসগুলো রাখার পর্যাপ্ত জায়গা তাদের রয়েছে। কিন্তু দেখা যায় যে, সেই জায়গায় সংকুলান না করে তারা রাস্তার ওপরে বাসগুলো রাখছে। তাদের নিজস্ব জায়গায় বাস রাখতে হবে অথবা টার্মিনালে রাখতে হবে। তারা যত্রতত্র রাস্তার ওপরে রাখতে পারবে না এবং বিভিন্ন জায়গায় কাউন্টারের অজুহাত দিয়ে সেখানে বাস রাখতে পারবে না। সব কার্যক্রম একটা সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার আওতায় টার্মিনালকেন্দ্রিক হতে হবে।

সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন—ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম, ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের নির্বাহী পরিচালক সাবিহা পারভীন, বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম, ডিএসসিসির ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও সচিব আকরামুজ্জামান, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ট্রাফিক) অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মো. মুনিবুর রহমান, গণপরিবহন বিশেষজ্ঞ ড. এস এম সালেহ উদ্দিন ও ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সভাপতি আজমল উদ্দিন আহমেদসহ আরও অনেকে।

সম্পর্কিত পোস্ট