শুক্রবার, ১ মার্চ ২০২৪, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০

ইমরান খানের সমাবেশ রুখতে তৎপর সরকার

প্রকাশ: ২৫ মার্চ ২০২৩ | ৪:০৫ অপরাহ্ণ আপডেট: ২৫ মার্চ ২০২৩ | ৪:০৫ অপরাহ্ণ
ইমরান খানের সমাবেশ রুখতে তৎপর সরকার

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) চেয়ারম্যান ইমরান খানের তথা সমাবেশের আগেই সাঁড়াশি অভিযান শুরু করেছে সরকার। সেই সঙ্গে সমাবেশে পৌঁছার সব রুট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। কনটেইনার দিয়ে রাস্তা অবরোধ করে রাখা হয়েছে।

শনিবার(২৫ মার্চ) রাতে তারাবির নামাজের পর লাহোরের মিনার-ই-পাকিস্তানে এই জনসমাবেশের আয়োজন করেছে পিটিআই। ইমরান খান আগেই ঘোষণা দিয়েছেন যে, মিনার-ই-পাকিস্তানের সমাবেশকে দেশের ঐতিহাসিক সমাবেশে রূপান্তর করা হবে। গত বছরের এপ্রিলে অনাস্থা ভোটে ক্ষমতা হারানোর পর থেকে বিভিন্ন সমাবেশে ব্যাপক জনসমাগম করে আসছে দলটি।

জানা গেছে, সমাবেশ শুরুর কয়েক ঘণ্টা আগে থেকেই পিটিআই নেতাকর্মীদের ধরতে সাঁড়াশি অভিযান শুরু করেছে পাঞ্জাব পুলিশ। ইতোমধ্যে শতাধিক নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। সেই সঙ্গে লাহোরের প্রবেশ ও প্রস্থান রুটসহ সমাবেশের দিকে যাওয়ার কিছু রুটে কন্টেইনার রাখা হয়েছে। 

রবি ব্রিজ ও রেলস্টেশন থেকে মিনার-ই-পাকিস্তানের দিকে যাওয়ার রুটগুলো বন্ধ করার পাশাপাশি শাহ আলম মার্কেটেও কন্টেইনার রাখা হয়েছে। যদিও জেলা প্রশাসন পিটিআইকে আজ (শনিবার) রাতে মিনার-ই-পাকিস্তানে সমাবেশ করার অনুমতি দিয়েছে।

পিটিআই চেয়ারম্যান ইমরান খান টুইটারে লাহোরে তার সমর্থকদের তারাবির নামাজের পর জলসায় যোগ দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি মনে করেন, এই সমাবেশ সমস্ত রেকর্ড ভেঙে দেবে।সরকার যে দলীয় সমর্থকদের সমাবেশে উপস্থিত হতে বাধা দেবে। সে ব্যাপারেও আগেই সতর্ক করেন ইমরান খান। তিনি বলেন, জলসায় অংশ নেওয়া জনগণের মৌলিক অধিকার।

পিটিআই চেয়ারম্যান বলেন, প্রত্যেকের অবশ্যই একটি স্বাধীন জাতির সদস্য হিসেবে তাদের সমাবেশে অংশ নেওয়ার অধিকার নিশ্চিত করতে হবে। 

সম্পর্কিত পোস্ট