বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১

ইউক্রেনে-রাশিয়া যুদ্ধ শুরু : বাজছে দামামা

প্রকাশ: ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ | ১:৫৫ অপরাহ্ণ আপডেট: ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২ | ১:১২ পূর্বাহ্ণ
ইউক্রেনে-রাশিয়া যুদ্ধ শুরু : বাজছে দামামা

শুরু হয়েছে ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ। বাজছে যুদ্ধের দামামা। একেরপর এক আতর্কিত হামলায় দিশেহারা ইউক্রেন। তথাপিও ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির জেলেনস্কি বলেছেন, দেশের সামরিক অবকাঠামো এবং সীমান্তরক্ষী বাহিনীর ওপর হামলা শুরু করেছে রাশিয়া। এমন অবস্থায় দেশের মানুষকে আতঙ্কিত না হয়ে রাশিয়ার বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। একই সঙ্গে দেশজুড়ে মার্শাল ল জারি করেছেন তিনি।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে জাতির উদ্দেশে দেওয়া এক ভিডিও বার্তায় প্রেসিডেন্ট ভ্লোদিমির জেলেনস্কি লোকজনকে আতঙ্কিত না হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন এবং রুশ আগ্রাসনের বিরুদ্ধে ইউক্রেনের বিজয়ের শপথও করেছেন। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ইউক্রেনের বিরুদ্ধে পুরোদমে সামরিক অভিযান শুরুর নির্দেশ দেওয়ার পর ওই ভিডিও বার্তা দিয়েছেন তিনি। উত্তরাঞ্চলীয় সীমান্তের রাশিয়া এবং বেলারুশ থেকে আর্টিলারি আক্রমণের কবলে পড়েছে ইউক্রেন। হামলার জবাবে ইউক্রেনের সামরিক বাহিনীও গোলা ছুড়ছে।

মস্কোর স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার ভোর ৫টা ৫৫ মিনিটে প্রতিবেশী এই দেশটিতে হামলার ঘোষণা দেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এর কিছু সময়ের মধ্যেই রাশিয়ার সামরিক বাহিনীর ক্ষেপণাস্ত্র ও কামানের গোলা ইউক্রেনের বিভিন্ন স্থাপনায় আঘাত হানতে শুরু করে।

হামলার মুখে রাজধানী কিয়েভে জরুরি সাইরেন বাজায় কর্তৃপক্ষ। পরে আতঙ্কে শহর ছেড়ে পালাতে শুরু করেন বহু মানুষ। অনলাইনে ছড়িয়ে পড়া বেশ কিছু ছবিতে মহাসড়কে পলায়নরত মানুষের গাড়ির স্রোত ও জট দেখা যায়।

গত কয়েক সপ্তাহের টানা উত্তেজনার পর ইউক্রেনের চূড়ান্ত সামরিক অভিযান শুরু করেছে রাশিয়া। বৃহস্পতিবার টেলিভিশনে দেওয়া এক ভাষণে পুতিন ইউক্রেনে রুশ সৈন্যদের অভিযানের নির্দেশ দেওয়ার দেশটির প্রধান প্রধান কয়েকটি শহরে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা হয়েছে। এছাড়া দেশটির উত্তর উপকূলীয় সীমান্তের বেলারুশ থেকে রাশিয়ার সৈন্যরা ইউক্রেনে ঢুকতে শুরু করেছে।

ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলে বিশেষ সামরিক অভিযান পরিচালনায় রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন নির্দেশ দেওয়ার পর ওই সৈন্যরা বেলারুশ থেকে প্রতিবেশী এই দেশটিতে প্রবেশ করছে বলে স্থানীয় কর্মকর্তারা নিশ্চিত করেছেন।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি বলছে, উত্তরাঞ্চল থেকে হামলার মানে রাশিয়া ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চল আক্রমণ করছে এবং রাশিয়ার সৈন্যরা দক্ষিণের ওডেসা অঞ্চলের দিকেও অগ্রসর হচ্ছে।

এমন পরিস্থিতিতে যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ফক্স নিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, তার প্রশাসন ক্ষমতায় থাকলে এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হতো না। তিনি আরও বলেন, পুতিন শুরু থেকেই এটা চাচ্ছিল, তা তিনি বিশ্বাস করেন না।

ট্রাম্প বলেন, আমার মনে হয় পুতিন কিছু একটা করতে চাচ্ছিলেন এবং আলোচনা চাচ্ছিলেন। কিন্তু পরিস্থিতি খারাপের দিকেই যেতে থাকল। আর তারপর তিনি (পুতিন) বুঝে গেলেন যুক্তরাষ্ট্রের দূর্বলতো কোথায়।

রাশিয়াতেও বিস্ফোরণের শব্দ পাওয়া গেছে। নিউজ এজেন্সি রয়টার্স একজন প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে লিখেছে- ইউক্রেন সীমান্ত থেকে নিকটবর্তী রাশিয়ার দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের বেলগোরোদ প্রদেশ এ বিস্ফোরণের আওয়াজ পাওয়া গেছে।

তবে সেটা কী বিস্ফোরণের শব্দ সেটা সম্পর্কে এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। অবশ্য সিএনএন রিপোর্টার ফ্রেডরিক প্লেইটজেন বলছেন, রকেট ও আর্টিলারির আওয়াজ পেয়েছেন।

এছাড়া কিছু বিমান উড়ে যাওয়ার শব্দ তিনি পেয়েছেন। বিমানগুলো ইউক্রেনের দিকে উড়ে গেছে বলে ধারণা তার।

সম্পর্কিত পোস্ট