বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

রমজান ঘিরে সতর্কতা

আমিরাতে ভিক্ষুকদের ধরপাকড় চলছে

প্রকাশ: ২১ এপ্রিল ২০২২ | ৯:২৬ অপরাহ্ণ আপডেট: ২১ এপ্রিল ২০২২ | ৯:২৬ অপরাহ্ণ
আমিরাতে ভিক্ষুকদের ধরপাকড় চলছে

রমজান উপলক্ষে সাধারণ নাগরিকদের সতর্কতা ও নিরাপত্তা পরিস্থিতির উন্নতির লক্ষ্যে সংযুক্ত আরব আমিরাতে ভিক্ষাবৃত্তির সঙ্গে জড়িতদের ধরপাকড় চলছে। দেশটির আবুধাবি, দুবাই, শারজাহসহ সকল প্রাদেশিক শহরে ভিক্ষাবৃত্তির সঙ্গে জড়িতদের উপর নজরদারি বাড়ানো হয়েছে।

এর মধ্যে শারজাহ প্রদেশে ভিক্ষাবৃত্তিতে জড়িত থাকার অপরাধে তিনজনকে আটক করা হয়েছে। বুধবার শারজাহ পুলিশের বারত দিয়ে স্থানীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। তিনজনের কাছ থেকে যথাক্রমে ৪৪ হাজার, ৯ হাজার ও ১২ হাজার দিরহাম পাওয়া গেছে। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ প্রায় সাড়ে ১৫ লাখ টাকা।
একই অপরাধে আরও ৯৪ ভিক্ষুককে আটক করেছে শারজাহ পুলিশ। এদের মধ্যে ৬৫ জন পুরুষ ও ২৯ জন নারী রয়েছে। ভিক্ষাবৃত্তির সঙ্গে জড়িত এই ৯৪ জনের অধিকাংশই ভিজিট ভিসা নিয়ে সংযুক্ত আরব আমিরাতে প্রবেশ করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

শারজাহয় ভিক্ষাবৃত্তি নিয়ন্ত্রণকারী দলের প্রধান লেফটেন্যান্ট কর্নেল জসিম মোহাম্মদ বিন তালিয়া গণমাধ্যমকে জানান, গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে অধিকাংশ অপরাধী ভিজিট (ভ্রমণ) ভিসা নিয়ে আমিরাতে প্রবেশ করেছে। কেউ কেউ এই পবিত্র মাসে দ্রুত মুনাফা অর্জনের জন্য এই কাজটি করে যাচ্ছে।

এর আগে ২০২০ ও ২০২১ সালে ভিক্ষাবৃত্তির সঙ্গে জড়িত প্রায় ১ হাজার ৪০৯ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে জব্দ করা অর্থের পরিমাণ ছিল প্রায় ৫০ মিলিয়ন দিরহাম।

এদিকে চলতি এপ্রিলে এক ভিক্ষুককে গ্রেপ্তার করেছে দুবাই পুলিশ। মাহে রমজানের শুরুর দিকে গ্রেপ্তারকৃত ওই ব্যক্তির কাছ থেকে বিভিন্ন দেশের মুদ্রাসহ প্রায় ৪০ হাজার দিরহাম জব্দ করা হয়েছে।

দুবাই পুলিশ জানায়, ১৮ মার্চ থেকে প্রথম রজমান পর্যন্ত ভিক্ষা বিরোধী অভিযানের আওতায় অন্তত ১৭৮ ভিক্ষুককে গ্রেপ্তার করেছেন তারা।

দুবাই পুলিশের অপরাধ ও তদন্ত বিভাগের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা কর্নেল আহমেদ আল আদিদি জানান, দরিদ্রদের সাহায্য করার জন্য আমিরাতে দাতব্য সংস্থা ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ রয়েছে। কিন্তু দেশে ভিক্ষাবৃত্তি বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ। ভিক্ষাবৃত্তির সঙ্গে জড়িত সংঘবদ্ধ চক্রের ১ লাখ দিরহাম জরিমানা ও ছয় মাসের জেল হতে পারে।

এদিকে আমিরাতে বসবাসকারী নাগরিকদের সতর্ক করে ভিক্ষাবৃত্তির বিষয়ে সচেতনতামূলক ভিডিও প্রকাশ করেছে আবুধাবি পুলিশ। বিভিন্ন মসজিদ, বাজার কিংবা বাসা বাড়ির দরজায় দাঁড়িয়ে সহানুভূতি ও উদারতার সুযোগ নেওয়া ভিক্ষুকদের কাছ থেকে বাসিন্দাদের সতর্ক থাকতে বলেছে তারা।

আবুধাবি পুলিশের জানায়, রমজান উপলক্ষে দেশটিতে ভিক্ষুকের সংখ্যা বেড়ে যায়। ভিক্ষুকরা নানা ধরণের গল্প সাজিয়ে মানুষকে প্রতারিত করে। তারা নিজেদের অভাবগ্রস্থ জানিয়ে সাহায্যের আবেদন করে। ২০২১ সালের রমজানে আবুধাবি পুলিশ ১৭৯ ভিক্ষুককে গ্রেপ্তার করে।

পুলিশ আরও জানায়, কেউ কেউ অনলাইনের মাধ্যমে দরিদ্র অবস্থার লোকদের ছবি প্রেরণ, অনাথদের সহায়তা, অসুস্থ লোকদের চিকিৎসা বা দরিদ্র দেশে মসজিদ ও স্কুল নির্মাণের সাহায্যের জন্য বানোয়াট বার্তা পাঠায়। এ ধরণের কাজে জড়িত থাকার অপরাধে কেউ ধরা পড়লে আইন অনুযায়ী তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা ও শাস্তির বিধান রাখা হয়েছে।

সম্পর্কিত পোস্ট