বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১

আইপিএল নাকি জাতীয় দল? খেলোয়াড়দের ওপরই ছাড়লো দ. আফ্রিকা

প্রকাশ: ৮ মার্চ ২০২২ | ১২:৫২ অপরাহ্ণ আপডেট: ৮ মার্চ ২০২২ | ১২:৫২ অপরাহ্ণ
আইপিএল নাকি জাতীয় দল? খেলোয়াড়দের ওপরই ছাড়লো দ. আফ্রিকা

আইপিএলের আসন্ন মৌসুমের জন্য ক্রিকেটারদের স্বাধীনতা দিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ড। আইপিএল খেলবেন নাকি বাংলাদেশ সিরিজ খেলবেন- সে বিষয়ে ক্রিকেটাররাই নেবেন সিদ্ধান্ত। যেকোনো সিদ্ধান্তই মেনে নেবে ক্রিকেট বোর্ড।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) ক্রিকেট শুরুর পর থেকে প্রতি মৌসুমেই সব দেশের খেলোয়াড়দের সামনে এসে দাঁড়ায় একটি সাধারণ প্রশ্ন; আইপিএল নাকি জাতীয় দল? সাধারণত আইপিএলের সময় আন্তর্জাতিক সিরিজ থাকে না। কিন্তু থাকলেই দোটানায় পড়তে হয় ক্রিকেটারদের।

আগামী ১৮ মার্চ থেকে ঘরের মাঠে বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন ওয়ানডে ও দুই টেস্ট খেলবে দক্ষিণ আফ্রিকা। যা শেষ হবে ১২ এপ্রিল। এ দুই সিরিজ শেষ করে দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটারদের আইপিএলে যোগ দিতে হয়ে যাবে ১৬ এপ্রিল। ফলে খেলতে পারবেন না বেশ কিছু ম্যাচ।

তাই আগেভাগেই দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ডের কাছে অনুরোধ করেছিল আইপিএল কর্তৃপক্ষ, তারা যেন তারকা ক্রিকেটারদেরকে আইপিএল শুরুর আগেই ছেড়ে দেয়। সেই অনুযায়ী, জাতীয় দল নাকি আইপিএল- এই প্রশ্নের উত্তর খেলোয়াড়দেরই নিতে বলছে দক্ষিণ আফ্রিকান বোর্ড।

এবারের আইপিএলে দল পেয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার ১১ জন খেলোয়াড়। যেখানে আছেন টেস্ট দলের ৬ নিয়মিত সদস্য এবং ওয়ানডে দলের তিনজন। ওয়ানডে সিরিজ শেষ হয়ে যাবে ২৩ মার্চ। তাই ওয়ানডে ক্রিকেটারদের আইপিএল খেলতে সমস্যা হবে না।

কিন্তু টেস্ট দলে থাকা কাগিসো রাবাদা, লুঙ্গি এনগিডি, এনরিচ নর্টজে, ডোয়াইন প্রিটোরিয়াস, এইডেন মারক্রাম, রসি ফন ডার ডুসেনদেরই হবে মূল সমস্যা। তাদেরই সিদ্ধান্ত নিতে হবে, জাতীয় দলের হয়ে টেস্ট সিরিজ খেলবেন নাকি কোটি টাকার আইপিএলে।

আর এই অবস্থাকে টেস্ট দলের অধিনায়ক ডিন এলগার উল্লেখ করছেন লিটমাস টেস্ট হিসেবে। পাশাপাশি এটিও মনে করিয়ে দিয়েছেন, জাতীয় দলে খেলার কারণেই আইপিএলে দলে পেয়েছেন তারা, আইপিএল খেলে জাতীয় দলে আসেননি।

সংলাপ/০৩/০৮/০০৪ আজিজ

সম্পর্কিত পোস্ট